১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লালনমেলায় হুইলের পরিচ্ছন্নতা রক্ষার উদ্যোগ

লালন তার দর্শনের মাধ্যমে এখনও বেঁচে আছেন অগণিত ভক্ত ও অনুসারীদের মাঝে। তাঁর স্মরণে প্রতিবছর পহেলা কার্তিক লালনের মৃত্যুবার্ষিকীতে কুষ্টিয়ায় অবস্থিত লালনের আখড়ায় আয়োজন করা হয় ‘লালনমেলা’র।

যদিও সারাবছর তাঁর ভক্তদের ভিড় কমবেশি লেগেই থাকে। তবে মেলা চলাকালীন লালনের আধ্যাত্মিকতা ও দর্শনকে খুঁজে নিতে মানুষের ভিড় থাকে অন্য যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি। মেলা উপলক্ষে আখড়া ও তার চারপাশ সাজিয়ে তোলা হয় নানান সাজে, বসে হরেক রকম মিষ্টি ও খাবার এবং স্যুভেনিয়রের স্টল। তিন দিনব্যাপী মেলায় বেড়াতে যাওয়া দর্শনার্থী ও লালন চর্চায় ব্যস্ত অনুরাগীরা প্রতিবারই কিছু সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। যার মধ্যে অন্যতম ছিল জামা-কাপড়ের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও ফ্রেশনেস।

এর জন্য সবাই ভিড় জমাতেন লালনের আখড়ার মূল ফটকের পাশ দিয়ে বয়ে চলা কালী নদীতে। কিন্তু নদীর পাড়ে তেমন কোন সুব্যবস্থা ছিল না। ফলে কাপড় পরিষ্কারের মতো নিয়মিত এই কাজটি খুবই ঝামেলার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।

কাপড় ধোঁয়ার বিশ্বস্ত ডিটারজেন্ট হুইল, লালনমেলায় তৈরি হওয়া এই সমস্যা সমাধানের জন্য এবার বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়। নারী ও পুরুষের সুবিধার্থে কালী নদীর পাড়ে বাঁধাই করে দেয় দুটি আলাদা ঘাট। মেলার ভেতরে বানানো হয় কাপড় কাচার জন্য একটি স্টল, হুইল কাপড় কাচার আখড়া। যেখানে দুটি ভিন্ন পদ্ধতিতে কাপড় ফ্রেশ করার সুযোগ দেয়া হয়। এর মধ্যে প্রথমটি হলো বাসা-বাড়িতে যেভাবে কাপড় ধোয়া হয় সেই পদ্ধতি।

কাপড় ধোয়ার জন্য এখানে ছিল প্রয়োজনীয় সবকিছু। যেমন: ফ্রেশ পানি, ফ্রি ডিটারজেন্ট, বালতি ও কাপড় কাচার জন্য নির্দিষ্ট জায়গা স্থাপন করা হয়। -বিজ্ঞপ্তি