১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইস্তানবুলে সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ‘নকল খাশোগি’

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার পর ১৫ সদস্যের সৌদির দলটির যে সদস্য খাশোগি সেজে ইস্তানবুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবন ছাড়ে সেদিনই ওই ব্যক্তির দেখা মেলে নজরদারি ক্যামেরায়। তুরস্কের এক কর্মকর্তা একথা জানিয়েছেন। খাশোগির ঘটনা নিয়ে তুরস্কের নজরদারি ক্যামেরায় একান্ত সিসি ক্যামেরা ফুটেজ হাতে পেয়েছে সিএনএন। এতে দেখা যায়, খাশোগির পোশাক পরা লোকটি সৌদি কনস্যুলেটের পেছনের দরজা দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন। নকল দাড়িওয়ালা লোকটি খাশোগির চশমার মতো চশমা পরা আছে। ২ অক্টোবরে খাশোগিকে সৌদি কনস্যুলেটে ঢুকতে দেখা যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর সেই ব্যক্তিকে ইস্তানবুলের বিখ্যাত বøু মসজিদে দেখা যায় বলে জানিয়েছে তুরস্ক। তুর্কী কর্মকর্তারা এই নকল খাশোগির নাম মুস্তফা আল-মাদানি বলে জানিয়েছেন। তুরস্কের দাবি সৌদির ‘ঘাতক স্কোয়াড’কে খাশোগিকে হত্যার জন্যই সৌদি কনস্যুলেটে পাঠানো হয়েছিল। এক কর্মকর্তা সিএনএনকে বলেন, ‘এ ভিডিওই প্রমাণ করেছে দেয় যে, মাদানিকে নকল খাশোগি সাজানোর জন্যই ইস্তানবুলে পাঠানো হয়েছিল। এটি পরিকল্পিত হত্যাকাÐ। খাশোগি হত্যাকাÐ নিয়ে টেলিফোনে এরই মধ্যে কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। তারা দুজনই এ ঘটনার সত্য উন্মোচনে একমত হয়েছেন।