১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জামায়াতের অনুসারীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণার দাবি নির্মূল কমিটির

জামায়াতের অনুসারীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণার দাবি নির্মূল কমিটির

অনলাইন রিপোর্টার ॥ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতের অনুসারীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণাসহ ইসির কাছে পাঁচ দফা দাবি জানিয়েছে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি। আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় এসব দফা নিয়ে ইসির সঙ্গে বৈঠক করে দলটি। আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বৈঠকে সভাপতিত্ব করছেন।

ইসির কাছে সংগঠনটির পাঁচ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- ঝুঁকিপূর্ণ সকল নির্বাচনী এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে হুমকি প্রদানকারীদের শাস্তির আওতায় আনা; জামায়াতের অনুসারীদের নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা ও নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী সব রাজনৈতিক দলকে ঘোষণা করতে হবে যে, তাদের সঙ্গে জামায়াতের কোনো সম্পর্ক নেই; নির্বাচনের সময় মুক্তিযুদ্ধ ও সংবিধান বিরোধী এবং ভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রতি ঘৃণা-বিদ্বেষ প্রচারকারীদের শাস্তির আওতায় আনা; ৭১-এর গণহত্যাকারীদের সন্তান বা পরিবারের অন্যান্য সদস্য, যারা সর্বোচ্চ আদালতের রায় অগ্রাহ্য করছে তাদের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার অযোগ্য ঘোষণা এবং সেনা বাহিনীকে দেশের অভ্যন্তরীন রাজনৈতিক কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত করলে তাদের অন্তর্জাতিক ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে বলে দাবিতে জানানো হয়।

কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির স্বাক্ষরিত স্মারক লিপিতে আরও জানানো হয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দেশের ৯২টি নির্বাচনী এলাকায় সংখ্যালঘু ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ভোটের সংখ্যা শতকরা ১২ ভাগ থেকে ৪৮ ভাগ পর্যন্ত, যার বেশির ভাগ ঝুঁকিপূর্ণ।

বৈঠকে সিইসির সঙ্গে ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত রয়েছেন। এছাড়া কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবিরের নেতৃত্বে ৮ সদস্যের প্রতিনিধি দল বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

যুদ্ধাপরাধী দল হিসেবে আগেই জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন বাতিল করে নির্বাচন কমিশন। এ জন্য দলটি নির্বাচনের অংশ নিতে পারবে না। এবার দলটির অনুসারীদের নির্বাচনের নিষিদ্ধের দাবি জানালো একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি।