১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্যারিস্টার মইনুল কারাগারে

ব্যারিস্টার মইনুল কারাগারে

অনলাইন রিপোর্টার ॥ সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে কটূক্তির ঘটনায় রংপুরে করা মানহানির মামলায় সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন।

বেলা একটার দিকে মইনুল হোসেনকে আদালতে নেয় ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। পরে শুনানি হয়।

শুনানিতে মইনুল হোসেনের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেনসহ অন্যরা বলেন, যে অভিযোগে মামলাটি হয়েছে, সেটি জামিনযোগ্য। আইন ও উচ্চ আদালতের বিধান অনুযায়ী, জামিনযোগ্য ধারার কোনো মামলায় আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতে আনা হলে, তিনি জামিন পেতে পারেন। তিনি জামিনের হকদার। তাঁরা আদালতে জামিনের জোর আবেদন জানান।

মইনুল হোসেনের জামিনের বিরোধিতা করে আদালতে বক্তব্য রাখেন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের প্রধান সরকারি কৌঁসুলি আবদুল্লাহ আবু।

শুনানিতে আবদুল্লাহ আবু বলেন, মইনুল হোসেন এক নারী সাংবাদিককে অপমান করেছেন। তাঁকে চরিত্রহীন বলেছেন। এটা গর্হিত অপরাধ। যে ধারায় মামলা হয়েছে, তা জামিনযোগ্য হলেও জামিন দেওয়া না-দেওয়া আদালতের এখতিয়ার।

জামিনের তীব্র বিরোধিতা করে বাদীপক্ষের আইনজীবী কাজী নজিবুল্লাহ হিরু বলেন, মইনুল হোসেন নারী সমাজকে অপমান করেছেন। দেশে তাঁর বিরুদ্ধে সেন্টিমেন্ট তৈরি হয়েছে।

শুনানি নিয়ে আদালত আদেশ দেন।

রংপুরে করা মানহানির এক মামলায় গতকাল সোমবার রাত পৌনে ১০টার দিকে রাজধানীর উত্তরায় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারের পর মইনুল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে নেওয়া হয়।

টক শোতে নারীর প্রতি বিদ্বেষপূর্ণ মন্তব্য করার অভিযোগে গতকাল রংপুর মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে মিলি মায়া বেগম নামের এক নারী মানহানির মামলা করেন। ওই মামলায় বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তা গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন।