১৫ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অভিমত ॥ টেকনাফের পথ ধরি

  • মতিলাল দেব রায়

নিরাপদ সড়ক চাই বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের মানুষের একটি আন্তরিক দাবিতে পরিণত হয়েছে- তা সবাই স্বীকার করবেন। সাধারণ মানুষকে বিষয়টি এত বেশি নাড়া দিয়েছে তার কারণ, যে কোন সময় যে কেউ নিজে অথবা তার কাছের আত্মীয়রা সড়ক দুর্ঘটনায় পড়তে পারেন। বাংলাদেশ সরকারের উচ্চপর্যায়ের নীতি-নির্ধারণী ব্যক্তিবর্গও বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে জরুরী অনেক সিদ্ধান্ত কার্যকরের নির্দেশ দিয়েছেন এবং নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে নতুন আইনও পাস করেছেন। গত ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ তারিখে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে গণসচেতনতা বাড়ানোর জন্য একটি নতুন স্লোগান- ‘নিরাপদে গাড়ি চালাই-নিজে বাঁচি অন্যকে বাঁচাই’ -এর মাধ্যমে নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রচারপত্র, লিফলেট, পোস্টার জনসাধারণের মাঝে বিতরণ করা হয়। এই বিষয়টি বিলম্বে হলেও আমাকে দৃষ্টি গোচর হয়েছে। সে কারণে লেখা উদ্বুদ্ধ হলাম। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা রবিউল হাসান, টেকনাফ সরকারী কলেজের অধ্যাপক সন্তোষ কুমার শীল ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। সেøাগানটি ছিল একটি শ্রুতিমধুর সেøাগান। একটি সেøাগান একটি সমাজকে বদলে দিতে পারে। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামের সময় ‘জয় বাংলা’ সেøাগানটি কি রকম বিপ্লবী আবেগ সৃষ্টি করত এবং মানুষকে উদ্বুদ্ধ করত যারা কাছে থেকে স্বাধীনতা সংগ্রাম দেখেছেন, ’৬৯ সালের গণআন্দোলন, ’৭১-এর অসহযোগ আন্দোলনের সঙ্গে পরোক্ষ বা প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিলেন বা যারা ছাত্র ছিলেন, তারা উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন একটি সময়পোযোগী গ্রহণযোগ্য সেøাগান সাধারণ মানুষকে কিভাবে আকৃষ্ট করে। তাই এই ‘নিরাপদে গাড়ি চালাই-নিজে বাঁচি অন্যকে বাঁচাই’ -স্লোগানটিকে সামনে রেখে টেকনাফ উপজেলার উদ্যোগের মতো বাংলাদেশের ৪৯২ উপজেলা পরিষদ, উপজেলা প্রশাসন এই রকম উদ্যোগ নিয়ে ‘জন সচেতনতা’ বাড়ানোর জন্য একটি কর্মসূচী বাস্তবায়ন করেন, যার ফলে সারাদেশের মানুষের মধ্যে ট্রাফিক আইনসহ রাস্তায় চলাফেরা সম্পর্কে অবগত হবে এবং ধীরে ধীরে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে।

উপরোক্ত সেøাগানটিÑ‘নিরাপদে গাড়ি চালাই-নিজে বাঁচি, অন্যকে বাঁচাই’ আমাদের হৃদয়ে স্পর্শ করা সেøাগানটি যেন আমাদের মনের গভীরের ইচ্ছার কথাই বলছে। তাই আমি বাংলাদেশের সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানদের কাছে আকুল আবেদন জানাচ্ছি- দেশের মানুষ বাঁচানোর এই কর্মসূচী প্রণয়ন করুন এবং তা সাফল্যজনকভাবে বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিন। এই সেøাগানটিকে যিনি ভাষা দিয়েছেন, তার প্রতি রইল আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

লেখক : আমেরিকা প্রবাসী