১৩ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কোহলি বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হতে চলেছে ॥ টেন্ডুলকার

কোহলি বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হতে চলেছে ॥ টেন্ডুলকার

অনলাইন ডেস্ক ॥ ক্রিকেটে সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়দের একজন বিরাট কোহালি, বলে দিলেন সচিন টেন্ডুলকার। তবে বিরাটকে নিয়ে তুলনায় নারাজ মাস্টার ব্লাস্টার। বলছেন, ‘‘আমি তুলনায় বিশ্বাসী নই।’’ সম্প্রতি একদিনের ক্রিকেটে সচিনের গড়া দ্রুততম দশহাজার রানের রেকর্ড ভেঙেছেন বিরাট। সামনে একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সচিনের ৪৯ শতরানের রেকর্ড রয়েছে। যে দিকে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছেন বর্তমান ভারত অধিনায়ক বিরাট। ইতিমধ্যেই একদিনের আন্তর্জাতিকে কোহলির শতরানের সংখ্যা ৩৮। বৃহস্পতিবার মিডলসেক্স কাউন্টির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে মুম্বাইয়ে পথ চলা শুরু হল সচিনের ক্রিকেট স্কুল ‘তেন্ডুলকর মিডলসেক্স গ্লোবাল অ্যাকাডেমি’। যেখানে বাচ্চাদের কোচ হিসেবে দেখা যাবে সচিনের বাল্যবন্ধু ও ভারতীয় দলে তাঁর একদা সতীর্থ বিনোদ কাম্বলিকে।

সেই উপলক্ষে নবি মুম্বাইয়ে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বিরাট প্রসঙ্গে সচিন বলেন, ‘‘খেলোয়াড় হিসেবে নিজেকে আগের চেয়ে অনেকটাই বদলে নিয়েছে বিরাট। পরিস্থিতি অনুযায়ী নিজেকে বদলে নেওয়ার এই গুণটা আমি বিরাটের মধ্যে আগেই দেখেছিলাম। যা দেখে আমার মনে হত, ছেলেটা বিশ্বের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় হতে চলেছে। শুধু এই প্রজন্মই নয়। সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটারদের একজন বিরাট।’’

তুলনা নয়: সচিন বলেন, ‘‘সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার বিরাট, এ ব্যাপারে বিভিন্ন মানুষের ভিন্ন ভিন্ন মত থাকতেই পারে। কিন্তু কেউ যদি বিষয়টি নিয়ে তুলনায় ঢোকেন, তা হলে তার মধ্যে নেই আমি। ষাট, সত্তর বা আশির দশকে ভিন্ন মানের বোলাররা ছিলেন। আমার সময়ে বোলারদের মান ছিল এক রকমের। এখন আবার অন্য বোলাররা খেলছেন। তাই আমি তুলনায় যেতে নারাজ।’’ সচিন সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘গত চব্বিশ বছর ধরে একই কথা বলে গিয়েছি। তা হল, আমি তুলনায় বিশ্বাসী নই। কারণ ক্রিকেট খেলাটা শুরুর দিন থেকে আজ পর্যন্ত বিভিন্ন প্রজন্মে নানা ভাবে পরিবর্তিত হয়েছে।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘এক এক প্রজন্ম এক এক রকম ভাবে খেলাটা উপভোগ করেছে। ক্রিকেটাররা খেলে গিয়েছেন। বিভিন্ন প্রজন্মে এর সঙ্গে পরিবর্তিত হয়েছে নিয়ম। পিচের চরিত্র পাল্টেছে। বদলেছে বল ও ব্যাট। বাউন্ডারি লাইনও বদলেছে। আমি অস্ট্রেলিয়ায় এমন জায়গাতেও খেলেছি যেখানে বল গিয়ে ধাক্কা খেয়েছে কংক্রিটে। সব সময়েই পরিবর্তন হচ্ছে। তাই ব্যক্তিগত ভাবে আমি মনে করি না একজন ক্রিকেটারের তুলনা হোক অন্য প্রজন্মের সঙ্গে।’’ একই প্রজন্মের খেলোয়াড়দের সঙ্গে তুলনাতেও আপত্তি রয়েছে ‘মাস্টার ব্লাস্টার’-এর। তিনি বলেন, ‘‘একই প্রজন্মের মধ্যেও তুলনা করতে চাই না আমি। প্রত্যেককেই সম্মান করা উচিত। কারও মান বিচার করতে গেলে যে একটা তুলনা টানতে হবে, সেটাও বিশ্বাস করি না আমি।’’

পৃথ্বী শ-কে প্রশংসা: এ দিন মুম্বাইয়ের নয়া প্রতিভা পৃথ্বী শ-এর প্রশংসা করে সচিন বলেন, ‘‘পৃথ্বী দ্রুত যে কোনও বিষয় শিখে নিতে জানে।’’ সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে জীবনের প্রথম টেস্টে রাজকোটে শতরান করেছিলেন পৃথ্বী। মুম্বাইয়ের এই নতুন তারা সম্পর্কে সচিনের মূল্যায়ন, ‘‘কাকে দলে নেওয়া উচিত বা কাকে বাদ দিতে হবে, সে সম্পর্কে কখনও কিছু বলিনি। কারণ আমার মতে, এতে নির্বাচকদের উপর বকলমে প্রভাব পড়ে। কিন্তু তা সত্ত্বেও পৃথ্বীর সম্পর্কে বলব আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওর উন্নতি দুর্দান্ত।’’ সচিন মুম্বাইয়ের এই ব্যাটসম্যান সম্পর্কে আরও বলেন, ‘‘বয়স বাড়ার সঙ্গে আরও উন্নতি করবে পৃথ্বী। ধারাবাহিক ভাবে ভাল খেলে যাবে। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরটা পৃথ্বীর উৎকর্ষ বাড়াতে সাহায্য করবে বলেই আমার মনে হয়। কারণ, দ্রুত যে কোনও বিষয় শিখে নেওয়ার গুণ রয়েছে পৃথ্বীর। সব ফর্ম্যাটেই ভাল খেলার দক্ষতা রয়েছে ওর।’’

সুযোগ রয়েছে অস্ট্রেলিয়ায়: আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়েও এ দিন আশা ব্যক্ত করেন সচিন। বলেন, এ বার অস্ট্রেলিয়ায় ভারতের টেস্ট সিরিজ জয়ের দুর্দান্ত সুযোগ রয়েছে। তাঁর কথায়, ‘‘আগের অস্ট্রেলিয়া আর এই অস্ট্রেলিয়া এক নয়।’’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

নির্বাচিত সংবাদ