১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ২২ মাসে সর্বনিম্ন লেনদেন

পুঁজিবাজারে ২২ মাসে সর্বনিম্ন লেনদেন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ মঙ্গলবারও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে দিনটিতে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২২ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে গেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫২০৩ পয়েন্টে। যা ১ বছর ৯ মাস ২৮ দিন বা ২২ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে গেছে। এর আগে ২০১৭ সালের ৮ জানুয়ারি এ সূচকটি অবস্থান করছিল ৫ হাজার ১৫৮ পয়েন্টে।

ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১৯৯ ও ১৮৪৩ পয়েন্টে।

ডিএসইতে ৪৩৯ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৯৯ কোটি টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৫৩৮ কোটি টাকা।

এদিকে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৯টি কোম্পানির মধ্যে ৭৯টি বা ২৩.৩০ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ২১৪টি বা ৬৩.১২ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টি বা ১৩.৫৭ শতাংশ কোম্পানির।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে খুলনা পাওয়ারের। এ দিন কোম্পানির ৪৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ২০ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এবং ১৬ কোটি ৩০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে এসকে ট্রিমস। লেনদেনে এরপর রয়েছে - ইউনাইটেড পাওয়ার, ফার্মা এইডস, ইনটেক, নূরানী ডাইং, স্কয়ার ফার্মা, অ্যাডভেন্ট ফার্মা ও ইন্ট্রাকো।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৫৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৯৭৫ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ১৫৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির দর। সিএসইতে মোট ১৬ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।