১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

‘ইভিএম পদ্ধতি সময়, অর্থ ও শ্রমের সাশ্রয় হবে’

‘ইভিএম পদ্ধতি সময়, অর্থ ও শ্রমের সাশ্রয় হবে’

অনলাইন রিপোর্টার ॥ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ব্যবহার করা গেলে নির্বাচনের গুণগত মান উন্নত হবে এবং সময়, অর্থ ও শ্রমের সাশ্রয় হবে।’

সিইসি বলেন, ‘শহরগুলোর সংসদীয় নির্বাচনী এলাকা থেকে দ্বৈচয়ন প্রক্রিয়ায় বেছে নেওয়া অল্প কয়েকটিতে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করা হবে। আজ বৃহস্পতিবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন সিইসি কে এম নুরুল হুদা। সন্ধ্যা ৭টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন সিইসি। তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৩ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ইভিএম প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ‘পুরাতন পদ্ধতির পাশাপাশি ভোটগ্রহণে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম ব্যবহারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। অনেকগুলো স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান নির্বাচনে আংশিক ও পূর্ণাঙ্গ ভোটগ্রহণে ইভিএম ব্যবহার সফল হয়েছে। জেলা এবং অঞ্চল পর্যায়ে প্রদর্শনীর মাধ্যমে ইভিএমের উপকারিতা সম্পর্কে ভোটারগণকে অবহিত করা হয়েছে। ইভিএম ব্যবহারে তাদের মধ্যে উৎসাহব্যঞ্জক আগ্রহ দেখা গিয়েছে।’

সিইসি বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ব্যবহার করা গেলে নির্বাচনের গুণগত মান উন্নত হবে এবং সময়, অর্থ ও শ্রমের সাশ্রয় হবে। সে কারণে শহরগুলোর সংসদীয় নির্বাচনী এলাকা থেকে দ্বৈচয়ন প্রক্রিয়ায় বেছে নেওয়া অল্প কয়েকটিতে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ করা হবে।’