১৪ নভেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জয়পুরহাটে অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৮ জনের মৃত্যু

জয়পুরহাটে অগ্নিকাণ্ডে একই পরিবারের ৮ জনের মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট, ৮ নবেম্বর ॥ জয়পুরহাট পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের আরামনগর মহল্লায় দুলাল হোসেনের বাড়িতে বুধবার রাতে ভয়াবহ এক অগ্নিকা-ে দুলাল হোসেনসহ পরিবারের ৮ সদস্য অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা গেছে। ঘটনা স্থলেই দুলালের স্ত্রী মোমেনাসহ তিনজনের মৃত্যু এবং দুলালসহ পাঁচজন ঢাকায় মারা যায়। এলাকাবাসী, ফায়ার ব্রিগেড ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আরামনগর এলাকার দুলাল হোসেনের বাড়িতে অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে। জয়পুরহাট ফায়ার ব্রিগেড খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে আগুন নেভানোর কাজ করে। এ সময় ফায়ার ব্রিগেড কর্মীরা দুলাল হোসেনের স্ত্রী মোমেনা বেগম (৫৫), তার পুত্র মোমিন হোসেন (৩৩) এবং মোমিন হোসেনের মেয়ে জেএসসি পরীক্ষার্থী বৃষ্টির (১২) মৃতদেহ এ বাড়ির রান্নাঘর থেকে উদ্ধার করে। এদিকে এলাকাবাসী বাড়ির জানালা ভেঙ্গে দুলাল হোসেন (৬০), তার পুত্রবধূ পরিনা বেগম (৩০), নাতনি হাসি (১৩), খুশি (১৩) ও নাতি তাহানুল ইসলাম নূরকে (১) অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পাশের ঘর থেকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করে। রাত ১২টার পরে জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি অগ্নিদগ্ধ পাঁচজনের অবস্থা অবনতি হলে তাদের ঢাকায় পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ পাঁচজনের মৃত্যু হয়।

জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকির হোসেন, পুলিশ সুপার মোঃ রাশীদুল হাসান, পৌর মেয়র মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, সদর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলামসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ ঘটনাস্থলে যায়। এদিকে অগ্নিকা-ে আটজনের নিহতের খবর জয়পুরহাটে ছড়িয়ে পরলে হাজার হাজার মানুষ শোকাচ্ছন্ন হয়ে পরে এবং আরামনগর এলাকার এ বাড়ির সামনে ভিড় জমায়।

এদিকে এই অগ্নিকা-ের ঘটনা নিয়ে প্রশাসনিকভাবে সুনিশ্চিত করে অগ্নিকা-ের কারণ বলতে না পারলেও মুখে মুখে ফিরছে শর্টসার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে অথবা রাইস কুকার থেকেও লাগতে পারে। তবে এ বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ্যাডিশনাল পুলিশ সুপার উজ্জল কুমার রায়কে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন সদস্যের এই কমিটিতে এ এস পি হেডকোয়ার্টার মোস্তফা কামাল হেনা, ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর ফরিদ উদ্দিন রয়েছেন। অপরদিকে ফায়ার ব্রিগেডের উপ-পরিচালক মোঃ নিজাম উদ্দিন, ওয়ারহাউস ইন্সপেক্টর মাহবুব জামান, স্টেশন অফিসার সিরাজুর ইসলামকে নিয়ে তিন সদস্যের অপর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ফায়ার ব্রিগেডের এই কমিটিকে সাতদিনের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে জয়পুরহাট শহীদ জিয়া কলেজ মাঠে মৃত আটজনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।