১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রতিটি ঘরে আওয়ামী লীগের দুর্গ গড়ে তুলতে হবে : মেয়র সাদিক

প্রতিটি ঘরে আওয়ামী লীগের দুর্গ গড়ে তুলতে হবে :  মেয়র সাদিক

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ বিসিসি’র মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেছেন, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ওপর যে জুলুম, অত্যাচার ও নির্যাতন করেছে সেই অমানুষিক নির্যাতনের ঘটনা ভুলে গেলে চলবেনা।

বিএনপির সন্ত্রাসীদের অত্যাচারে সেদিন যারা বাড়ি-ঘর ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছিলেন তাদের অনেকেই মা-বাবার জানাজায়ও অংশগ্রহণ করতে পারেনি। সেই বিএনপি যদি আবারও সুযোগ পায় তাহলে কঠিন অবস্থার সৃষ্টি করবে। তাই এখনই প্রতিটি ঘরে ঘরে আওয়ামী লীগের দুর্গ গড়ে তুলতে হবে।

মঙ্গলবার বেলা এগারোটায় আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আলোচনা সভার প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ও বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ আরও বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাকেই মনোনয়ন দেবেন আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে সেই প্রার্থীর পক্ষে ভোটের মাধ্যমে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করবো।

প্রার্থীর কথা না ভেবে স্বাধীনতার প্রতীক নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করার জন্য যুবলীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের প্রতি আহবান জানিয়ে মেয়র বলেন, কাল সাপকে বিশ্বাস করা যায় কিন্তু বিএনপিকে কোন রকম বিশ্বাস করা যায়না। আওয়ামী লীগের বিগত দশ বছর বিএনপির নেতাকর্মীরা এখানে শান্তিতে বসবাস করলেও তারা ক্ষমতায় আসলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের দেশের কোথাও থাকতে দিবেনা।

নৌকা মার্কায় ভোটের মাধ্যমে দেশের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে উল্লেখ করে মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ বলেন, ১৯৯৬ সালে দেশের উন্নয়ন হয়েছে। এরপর দেশের উন্নয়নের গতি থেমে যায়। পরবর্তীতে ২০০৮ সালে এবং ২০১৪ সালে নৌকায় ভোটের মাধ্যমেই গত ১০ বছরে বিশ্বে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

নগরীর শহীদ সোহেল চত্বরস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে জেলা ও মহানগর যুবলীগের আলোচনা সভার মেয়র সাদিক আব্দুল্লাহ গ্রমীণ অর্থনীতির উন্নয়ন হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, গ্রামগুলো এখন শহরে রূপান্তরিত হয়েছে। কোনো রাস্তা কাঁচা নেই, গ্রামে শতভাগ বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। এসবই আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের অবদান।

জেলা যুবলীগের সভাপতি অধ্যাপক জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাহাবুব উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রম, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট একেএম জাহাঙ্গীর হোসাইন, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মেজবা উদ্দিন জুয়েল, মাহমুদুল হক খান মামুন, শাহিন সিকদার, নবনির্বাচিত কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা এ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম খোকন প্রমুখ। সভার শুরুতে প্রধান অতিথি যুবলীগ নেতাদের নিয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বেলুন-ফেস্টুন ও পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধণ করেন। অনুষ্ঠানে জেলা ও মহানগর যুবলীগসহ দশটি উপজেলার কয়েক হাজার নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।