১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশে অবাধ গণতন্ত্রের চর্চা দেখতে চান জার্মান রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশে অবাধ গণতন্ত্রের চর্চা দেখতে চান জার্মান রাষ্ট্রদূত

অনলাইন ডেস্ক ॥ বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মানের রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহোল্জ বলেছেন, জার্মানী বাংলাদেশে অবাধ গণতন্ত্রের চর্চা দেখতে চান। সেজন্য একটি অবাধ, সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন জরুরি। আগামী নির্বাচনে সব দল অংশ নেবে বলে আশা করছি। কোনো রাজনৈতিক দলই নির্বাচনের বাইরে থাকবে না।

মঙ্গলবার রাতে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি সাংবাদিকদের কাছে এ সব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, গত ১০ বছরে বাংলাদেশের অর্জন ব্যাপক। অর্থনৈতিক উন্নয়নে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। অচিরেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। তিনি বাংলাদেশর কাঠামোগত পরিবর্তনের ভূয়শী প্রশংসা করেন।বাংলাদেশের উন্নয়ন উত্তর উত্তর বৃদ্ধি পাবে। জার্মানী বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী। আমরা বাংলাদেশকে জলবায়ূ পরিবর্তন, ইলেট্রনিক্স পাসপোর্ট, গুড গভার্নেসসহ বিভিন্নভাবে সহায়তা করছি। জামানী সব সময় বাংলাদেশের জনগণের সঙ্গে আছে।

জার্মান বাষ্ট্রদূত আরো বলেন, আমি বাংলাদেশের ইতিহাস, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য চর্চা করেছি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি আমার গভীর শ্রদ্ধা রয়েছে। বাঙালি জাতির মহানায়কের স্মৃতিসৌধে এসে তার স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে আমি নিজেকে ধন্য মনে করছি।

এর আগে টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে জার্মানী রাষ্ট্রদূত পিটার ফাহরেনহোল্জ জাতিরপিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধের বেদিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে তিনি বঙ্গবন্ধুর আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ প্রার্থনা করেন। সন্ধ্যার পর জার্মানী রাষ্ট্রদূত টুঙ্গিপাড়া বঙ্গবন্ধু ভবনে প্রবেশ করেন। সেখানে রক্ষিত পরিদর্শন বইতে তিনি মন্তব্য লিখে স্বাক্ষর করেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য ও জাতীয় নেতা শের-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হকের নাতি এ.কে ফাইয়াজুল হক রাজু রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন। এরপর কেন্দ্রীয় বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ প্রজম্ম লীগের পক্ষ থেকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। পরে নেতৃবৃন্দ পবিত্র ফাতেহাপাঠ ও বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া মোনাজাত করেন।

এ সময় সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. শরীফ খান, সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, আবু তৌহিদ, বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ প্রজম্ম লীগের গোপালগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এস.এম জামিল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হোসেন সহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।