১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাচারের শিকার ৬৫ বাংলাদেশী মালয়েশিয়া থেকে উদ্ধার

ফিরোজ মান্না ॥ মালয়েশিয়ায় পাচারের শিকার ৬৫ বাংলাদেশী নাগরিককে উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। এ ঘটনায় দুই মালয়েশিয়ান নাগরিককে আটক করা হয়েছে। সম্প্রতি মালয়েশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে পুলিশ অভিযানকালে একটি বিদেশী কর্মী নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। দেশটির পুলিশ ধারণা করছে, এসব বাংলাদেশী নাগরিক সাগর পথে মালয়েশিয়ায় প্রবেশ করেছে। উদ্ধারকৃত বাংলাদেশীদের দেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে খবর মিলেছে।

মালয়েশিয়া থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক মুস্তাফার আলী জানিয়েছেন, ওই অভিযানে বিভিন্ন দেশের ৩৭৭ জাল পাসপোর্ট ও অনেক ভুয়া কাগজপত্র জব্দ করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্ত শেষে আমরা মনে করছি, এই কর্মীরা নিয়োগদাতা কোম্পানিটির প্রতারণার শিকার হয়েছেন। তাদের ৩ থেকে ৫ মাস কোন বেতন দেয়া হয়নি। উল্টো তাদের খাওয়া পড়ার জন্য ৩শ’ থেকে ৫শ’ মালয়েশিয়ান রিংগিত ঋণ করতে হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, নতুন সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মালয়েশিয়ায় বৈধ নথিপত্র ছাড়া অবস্থানরত বিদেশীদের ধরতে দেশটির কর্তৃপক্ষের সাঁড়াশি অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। বৈধ নথিপত্রহীন বিদেশী কর্মীদের স্বদেশে ফেরত যেতে বেঁধে দেয়া আল্টিমেটাম গত ৩০ আগস্ট শেষ হয়েছে অনেক আগেই। এখনও যারা অভৈধভাবে দেশটিতে রয়ে গেছেন, তাদের বিরুদ্ধে গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে অভিযান চালানো হচ্ছে। তারা এখন সাধারণ ক্ষমার আওতায় পড়বে না। তাদের বিরুদ্ধে দেশটির অভিবাসন আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে, আবারও সাগর পথে শুরু হয়েছে মানবপাচার। পাচারকারী চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এবার তাদের টার্গেট গ্রæপ হচ্ছে রোহিঙ্গা। পাশাপাশি কিছু বাংলাদেশী নাগরিককেও রোহিঙ্গাদের সঙ্গে মাছ ধরার নৌকায় সাগর পাড়ি দিয়ে মালয়েশিয়া নিয়ে যাচ্ছে। পাচারকারী চক্রের প্রোলভনে বহু মানুষ বড় অঙ্কের টাকা দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পাড়ি দিচ্ছেন উত্তাল সাগর।

সূত্র জানিয়েছে, মানবপাচার আসলে কোন দিনই বন্ধ হয়নি। কিছুটা নিয়ন্ত্রণে ছিল। এখন আবার নতুন করে মানবপাচার শুরু হয়েছে। এবারও একই পথে থাইল্যান্ড ও মালয়েশিয়ায় যাচ্ছেন। তারা সাগর থেকে উঠেই বন জঙ্গলে দিনের পর দিন মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন।