১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রায়পুরায় সংঘর্ষে নিহত ৩ জনের দায় আ,লীগ নেবে না : পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী

রায়পুরায় সংঘর্ষে নিহত ৩ জনের দায় আ,লীগ নেবে না : পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী ॥ নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চল বাঁশগাড়ি ও নিলক্ষায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে হতাহতের ঘটনার সাথে আওয়ামী লীগের কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। ব্যাক্তিগত দন্ধ ও আধিপত্ব বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বিকেলে নরসিংদী জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম হিরু (বীর প্রতিক) এই দাবী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম হিরু বলেন,বর্বরতম সংঘর্ষ ও হতাহতের দায় আওয়ামী লীগের নয়। এই দায় আওয়ামী লীগ নেবেন না। শুধু মাত্র স্থানীয় নেতাকর্মীদের ব্যাক্তিগত স্বার্থ হাসিলের জন্য বার বার এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। তবে আর কোন ছাড় দেয়া হবে না। যারা আওয়ামীলীগের নাম ব্যাবহার করে বাড়িঘরে হামালা পাল্টা হামলা ও টেঁটা যুদ্ধের ঘটনা ঘটাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে দল থেকে বহিস্কার সহ দলীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নরসিংদী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন ভূইয়া,নরসিংদী সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সফর আলী ভুইয়া,রায়পুরা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সাদেকুর রহমান,রায়পুরা উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান,শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আমজাদ হোসেন বাচ্চু সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

অন্যদিকে পুলিশ সুপার বিকেলে তার কার্যলয়ের সম্মেলন কক্ষে এ ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলন করেন।এ সময় পুলিশের পক্ষে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে অতিরিক্ত ডিআইজি আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, সংঘর্ষে ঘটনায় এ পর্যন্ত ৩ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকায় আটককৃত ১৩ জনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনের ১৯-এ পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে । মামলায় এজাহার ভূক্ত ০৯ জন আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অপর আরো একটি অস্ত্র আইনের-১৯ এ এজাহার ভূক্ত আসামী ০৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের কাছ থেকে ০৯টি উন্নত মানের স্বয়ংক্রীয় আগ্নেয়াস্ত্র এবং ০৭ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এছাড়াও বর্তমানে সেখানে পুলিশের অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকায় পুলিশের নিয়ন্ত্রনে আছে বলে তিনি দাবী করেন।

এদিকে নিহতের ঘটনায় দুই দিনেও থানায় কোন হত্যামামলা দায়ের করা হয়নি। হত্যা ও সংঘর্ষের ঘটনায় চরাঞ্চলে উত্তেজনা বিরাজ করছে। থম থমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে পুরু এলাকায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে এলাকা বিপুল পরিমান পুলিশ মোতায়েন করা হয়।