১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দিল্লীর বায়ুদূষণ রোধে শিল্পের সৃষ্টি

কথায় বলে, সঙ্কট থেকেই নতুন সম্ভাবনার জন্ম হয়। ভারতের রাজধানী দিল্লীর ভয়ঙ্কর বায়ুদূষণ জন্ম দিচ্ছে নতুন নতুন উদ্ভাবনী ক্ষমতার। দেশের বিদ্যুত-সঙ্কট যেভাবে জন্ম দিয়েছিল জেনারেটর-ইনভার্টার শিল্পের, ঠিক সেভাবেই বায়ুদূষণ মোকাবেলায় এগিয়ে আসছে একাধিক সংস্থা। কোনোটি স্টার্টআপ, কোনটি প্রতিষ্ঠিত সংস্থা। ফলে দেশে তৈরি হচ্ছে এক নতুন বাজার।

রাস্তাঘাটের দূষিত বাতাস রুখতে শুধু নাকঢাকা মুখোশ প্রথম চালু হয়েছিল ট্রাফিক পুলিশদের স্বাস্থ্য রক্ষার তাগিদে। ক্রমেই সেই মুখোশ সর্বজনীন হয়ে উঠেছে। স্রেফ এক টুকরো কাপড় দিয়ে নাকমুখ-ঢাকা মুখোশ যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে বিজ্ঞানসম্মতভাবে তৈরি দূষণ প্রতিরোধী মুখোশ। প্রতিদিন ১০ রুপির ‘ইউজ এ্যান্ড থ্রো’ মুখোশ থেকে শুরু করে ভারতে এখন দুই হাজার রুপির ‘ফিল্টার্ড এয়ার মাস্ক’-এর বাজার বাড়ছে। নামমুখ-ঢাকা মুখোশে যাদের অনীহা, তাদের জন্য বাজারজাত হয়েছে ‘ন্যাসাল ফিল্টার’। দিল্লী আইআইটির কয়েকজন প্রাক্তন ছাত্র ও তাদের অধ্যাপকরা মিলেমিশে শুরু করেছেন এটি। মাত্র ২ সেন্টিমিটার মাপের এই ফিল্টার নাকের ফুটোয় ঢুকিয়ে দিয়ে স্বাভাবিক নিশ্বাস-প্রশ্বাস নেয়া যায়। ক্ষুদ্র এই ফিল্টার বাতাসের ধূলিকণা আটকে দেয়। গত বছর ন্যাসাল ফিল্টারের উদ্ভাবকেরা রাষ্ট্রপতির পুরস্কার পেয়েছিলেন। সাধারণ মুখোশের মতো এই ফিল্টারও ব্যবহার করে ফেলে দেয়া যায়। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) অনুমোদনপ্রাপ্ত এই সব মুখোশ ও ধূলিকণারোধক ফিল্টার ওষুধের দোকান থেকে দেদার বিক্রি হচ্ছে। পাওয়া যাচ্ছে অনলাইনেও।

বিদ্যুত ঘাটতি রুখতে তৈরি হওয়া জেনারেটর বা ইনভার্টার শিল্পের প্রবৃদ্ধির হার বছরে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ। এই শিল্পের বহর বছরে অন্তত ১০ হাজার কোটি রুপির। বায়ুদূষণের মোকাবেলায় যে শিল্প ক্রমশ মাথাচাড়া দিচ্ছে, তার বাজারের বহর এখনও অজানা। শিল্প সংস্থা ‘ফিকি’ বা ‘সিআইআই’ এখনও এই বাজারের বহর ও তার সম্ভাবনা নির্ধারিত করতে পারেনি। ফিকির সাবেক অর্থনৈতিক উপদেষ্টা অঞ্জন রায়ের মতে, এর একটা কারণ, খুবই ছোট আকারে এই সব সম্ভাবনা মাথাচাড়া দিচ্ছে। তা ছাড়া জেনারেটর ও ইনভার্টার যেমন সারা বছর কাজে লাগে, দূষণ মোকাবিলার বিষয়টি তেমন নয়। তাই বাজারের মাপও এখনও নির্দিষ্ট করা যায়নি। বায়ুদূষণের মোকাবেলা ধীরে হলেও নিশ্চিতভাবে জন্ম দিচ্ছে ছোট ছোট উদ্ভাবনী শিল্প ও কর্মসংস্থানের। কর্মসংস্থান বৃদ্ধিতে তাই দূষণ দেখাচ্ছে অন্য এক আলো।

অর্থনীতি ডেস্ক