১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

থার্টি ফার্স্টে বাড়ির ছাদেও অনুষ্ঠান নয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

থার্টি ফার্স্টে বাড়ির ছাদেও অনুষ্ঠান নয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ নির্বাচনের কারণে এবার থার্টিফার্স্ট রাতে কোনো অনুষ্ঠান নয় বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এছাড়া থার্টি ফাস্ট নাইটে কোনো হোটেলে গ্যাদারিং সৃষ্টি করে ডিজে পার্টি করা যাবে না। কোনো হোটেলে কোনো ডিজে পার্টি করা যাবে না।

রবিবার (১৮ নবেম্বর) সচিবালয়ে আসন্ন বড়দিন উদযাপন এবং থার্টি ফার্স্ট নাইটে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে আয়োজিত সভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

৩১ ডিসেম্বর দিন ও রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকার ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করা যাবে না জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘থার্টি ফাস্ট নাইটে কোনো হোটেলে গ্যাদারিং সৃষ্টি করে ডিজে পার্টি করা যাবে না। কোনো হোটেলে কোনো ডিজে পার্টি করা যাবে না। হোটেলগুলো তাদের পার্কিংয়ের বাইরে অন্য কোনো স্থানে অবৈধভাবে গাড়ি পার্ক করতে পারবে না। এটাও আমরা নিয়ন্ত্রণ করব।’

২৫ ডিসেম্বর বড়দিনে সব চার্চে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সারাদেশে প্রায় সাড়ে ৩ হাজারের মতো চার্চ রয়েছে। তাই বড়দিনেও কোনো ধরনের আতশবাজি ও পটকা ফোটানো যাবে না।

আগের দিনই দেশের জাতীয় নির্বাচন, পরদিন ইংরেজি বর্ষ বিদায়ের আনুষ্ঠানিকতা, এজন্য বিশৃঙ্খলা এড়াতে ও নিরাপত্তার সার্থে কোনো আয়োজন না রাখার তাগিদ দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি জানান, খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের অন্যতম উৎসব বড়দিনে প্রতিটি গির্জায় বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। থার্টিফার্স্ট নাইটে কোথাও কোনো আতশবাজি বা পটকা ফোটানোর যাবে না। পাশপাশি, চার্চগুলো নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা হবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, সুরক্ষাসেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী, র্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের নেতা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।