১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রকাশিত হলো খালেদা জিয়ার জীবনীগ্রন্থ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি চেয়ারপার্সনের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ও নানা ঘটনা প্রবাহ নিয়ে জীবনীগ্রন্থ ‘খালেদা জিয়া: হার লাইফ, হার স্টোরি’ প্রকাশ করা হয়েছে। রবিবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র মুক্তির কয়েক দিনের মধ্যেই কারাবন্দী খালেদা জিয়াকে নিয়ে গ্রন্থ প্রকাশিত হলো। গ্রন্থটির লেখক সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ। এটি প্রকাশ করেছে দ্য ইউনিভার্সেল একাডেমি। ইংরেজীতে লেখা ৭১৮ পৃষ্ঠার এই গ্রন্থের দাম রাখা হয়েছে ২ হাজার টাকা।

গত শতকের আশির দশকের প্রথম দিকে স্বামী রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান নিহত হওয়ার পর একেবারে গৃহিণী থেকে রাজনীতিতে আসেন খালেদা জিয়া। জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর ক্যান্টনমেন্টে গড়া দল বিএনপির জনভিত্তি তৈরি হয় খালেদা জিয়ার হাতেই। এরশাদবিরোধী আন্দোলনে নেতৃত্ব দেয়ার পর ১৯৯১ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে দেশের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হন খালেদা জিয়া। এরপর বহু চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে বিএনপিকে নেতৃত্ব দিয়ে চলছেন খালেদা জিয়া। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় দন্ড নিয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাবন্দী তিনি।

গ্রন্থটিতে ২০০৭ সালের সেনাসমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়কালের কিছু কথাও উঠে এসেছে। এ ছাড়া ১৯৪৫ সালে দিনাজপুরে জন্ম নেয়া খালেদা খানম পুতুল কীভাবে সেনা কর্মকর্তা জিয়াউর রহমানের স্ত্রী হলেন, স্বামীর মৃত্যুর পর গৃহবধূর দায়িত্ব ছেড়ে কিভাবে দলের দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন এবং কিভাবে দেশনেত্রী হয়ে উঠলেন- সেইসব ঘটনাপ্রবাহ বর্ণনা করা হয়েছে বইটিতে। উল্লেখ্য এর আগে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে নিয়ে ‘প্রেসিডেন্ট জিয়া অব বাংলাদেশ: আ পলিটিক্যাল বায়োগ্রাফি’ শীর্ষক জীবনীগ্রন্থ লিখেছিলেন সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে গ্রন্থের লেখক মাহফুজ উল্লাহ বলেন, খালেদা জিয়া জনমানুষের রাজনীতিবিদ বলেই এই বইয়ের নামকরণ করা হয়েছে ‘হার লাইফ, হার স্টোরি’। খালেদা জিয়া যে বয়সে বিধবা হয়েছেন, এর পর বাকি জীবন আজ পর্যন্ত দেশ ও দেশের মানুষের জন্য নিবেদন করেছেন। তিনি দেশের মানুষের কাছে বাতিঘর হিসেবে দাঁড়িয়ে আছেন। খালেদা জিয়া হচ্ছেন দেশের রাজনীতির একজন বংশীবাদক। বইটি পড়লে পাঠকরা বুঝবেন এই বইটি হচ্ছে মোহিনী নেতৃত্ব এবং গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রামের একমন্যতা।

গ্রন্থটির ওপর আলোচনা করেন সাবেক রাষ্ট্রদূত এম আনোয়ার হাশিম, নিউ এইজ সম্পাদক নুরুল কবীর, কলামিস্ট ইফতেদার আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক লায়লা এন ইসলাম, অধ্যাপক আসিফ নজরুল প্রমুখ।

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, অধ্যাপক এজেডএম জাহি হোসেন, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডাঃ জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক মাহবুব উল্লাহ, সাবেক সচিব ইসমাইল জবিউল্লাহ, সৈয়দ কামালউদ্দিন, অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, বিএনপি নেতা তাবিথ আউয়াল, শামা ওবায়েদ, জেবা খান প্রমুখ।