১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হিল্টন হোটেলে নারীর গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ !

হিল্টন হোটেলে নারীর গোসলের নগ্ন ভিডিও ধারণ !

অনলাইন ডেস্ক ॥ যুক্তরাষ্ট্রের হোটেল সেবাদাতা বিখ্যাত কোম্পানি হিল্টন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের বিরুদ্ধে ১০০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেছেন শিকাগোর এক নারী। তিনি বলেছেন, হোটেলে তার গোসলের নগ্ন ভিডিও গোপন ক্যামেরায় ধারণের পর তা বিভিন্ন পর্ন সাইটে আপলোড করা হয়েছে।

হোটেল জায়ান্ট এই প্রতিষ্ঠানের অজ্ঞাত এক কর্মকর্তাকে মামলার আসামি করা হয়েছে। মামলার অভিযোগে ওই নারী বলেছেন, হোটেল কর্তৃপক্ষের এ ধরনের গাফিলতি তার জন্য গুরুতর এবং স্থায়ী মানসিক আঘাত, প্রচণ্ড মানসিক যন্ত্রণা ও অন্যান্য দিক থেকে তাকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

হিল্টন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের বিরুদ্ধে ১৯ পৃষ্ঠার এক অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নারী। তিনি বলেছেন, ২০১৫ সালের জুলাইয়ে ল স্কুলের একটি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য নিউইয়র্কের আলব্যানিতে হিল্টন ওয়ার্ল্ডওয়াইডের হ্যাম্পটন ইন অ্যান্ড স্যুটস হোটেলে উঠেছিলেন তিনি। হোটেলের বাথরুমে গোপন ক্যামেরায় তার নগ্ন হয়ে গোসলের পুরো দৃশ্য ধারণ করা হয়।কিন্তু চলতি বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ ঘটনা সম্পর্কে কোনো কিছুই জানতেন না। প্রায় তিন বছর তিনি একটি ই-মেইল পান। ই-মেইলে তাকে একটি পর্ন সাইটের ভিডিও লিঙ্ক পাঠানো হয়। ই-মেইলে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, ভিডিওতে যাকে নগ্ন গোসলের দৃশ্যে দেখা যাচ্ছে সেটা কি তুমি?পরে ছদ্মবেশী ব্যক্তি ই-মেইলে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে ওই নারীর কাছে জানতে চান কোথায় পড়াশোনা করেছেন এবং কী চাকরি করেন। হুমকিদাতা শেষ পর্যন্ত ওই নারীর কাছে থেকে আশানুরূপ সাড়া না পেয়ে এই ভিডিও আরো বেশ কিছু পর্ন সাইটে ছড়িয়ে দেন। পরে ওই নারীর নামে ই-মেইলে অ্যাকাউন্ট খুলে তার সহপাঠী, বন্ধু, সহকর্মী ও অন্যান্যদের কাছে ই-মেইলে গোসলের নতুন নগ্ন ভিডিওর লিঙ্ক পাঠিয়ে দেন ছদ্মবেশী ওই ব্যক্তি।

আবারো ওই নারীর সঙ্গে যোগাযোগ করে ভিডিও মুছে ফেলে দেয়ার শর্তে তার কাছে ২ হাজার ডলার চাঁদা দাবি করেন। এছাড়া প্রত্যেক মাসে আরো ১ হাজার ডলার করে চান ওই ব্যক্তি। হ্যাম্পটন ইনের একই কক্ষে অন্যান্যদের গোসলের দৃশ্যও এভাবে ধারণ করা হয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করেছেন ওই নারী।

হিল্টনের এক মুখপাত্র বলেছেন, আমরা অতিথিদের নিরাপত্তা এবং কল্যাণের জন্য অবিশ্বাস্য রকমের পদক্ষেপ নিয়ে থাকি। অপর এক কর্মকর্তা ওই নারীর অভিযোগে বিস্মিত এবং অবাক হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, কোনো ধরনের রেকর্ডিং ডিভাইস কিংবা এ ধরনের অন্য কোনো কিছুই হোটেলের বাথরুমে পাওয়া যায়নি।

সূত্র : এএফপি।