১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অ্যাডিলেড টেস্টে ৭ উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার রান ১৯১

অ্যাডিলেড টেস্টে ৭ উইকেট হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ার রান ১৯১

অনলাইন ডেস্ক ॥ প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনে দুর্দান্ত প্রত্যাঘাত করল ভারত। ২৫০ রানে প্রথম ইনিংস শেষ হওয়ার পর শুক্রবার খেলার শেষে অস্ট্রেলিয়াকে সাত উইকেটে ১৯১ রানে আটকে রাখল বিরাট কোহালির দল। এখনও ৫৯ রানের লিড রয়েছে ভারতের।

এদিন সকালে অ্যাডিলেড ওভালে শুরুতেই মোহাম্মদ শামির উইকেট হারায় ভারত। কোনও রান যোগ হয়নি। ২৫০ রানে থামে প্রথম ইনিংস। অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের তৃতীয় বলেই ওপেনার অ্যারন ফ্রিঞ্চকে বোল্ড করে ইশান্ত শর্মা পাল্টা বুঝিয়ে দিলেন যে লড়াই ছাড়া বিন্দুমাত্র জমি ছাড়তে রাজি নন তাঁরা।

যদিও সেই ধাক্কা সামলে প্রাথমিক লড়াইটা শুরু করেছিলেন দুই অজি ব্যাটসম্যান, মার্কাস হ্যারিস এবং পাক বংশোদ্ভূত উসমান খাজা। দ্বিতীয় উইকেটে ৪৫ রান যোগ করেও ফেলেছিলেন তাঁরা। এই জুটি যখনই কোহলিদের সামনে অশনি সঙ্কেত হয়ে উঠেছিল, তখনই পরিত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হন বহু যুদ্ধের নায়ক রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

ইনিংসের তৃতীয় বলে যে আঘাতটা ইশান্ত শর্মার হাত ধরে এসেছিল, সেটা মজবুত করার দায়িত্ব এরপর নিজের কাঁধে তুলে নিলেন ভারতীয় দলের এই অফ স্পিনার। কেন তাঁকে অনিল কুম্বলে পরবর্তী ভারতীয় স্পিনের কাণ্ডারি বলা হয়, সে কথা প্রমাণ করাই ছিল অশ্বিনের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। উপমহাদেশের বাইরে তেমন সফল নন, অশ্বিনের বিরুদ্ধে এই ধারণাই প্রচলিত। এদিন কিন্তু তা ভেঙে ফেলতে উদ্যোগী দেখাল তাঁকে। প্রথমে ওপেনার মার্কাস হ্যারিস (২৬), তারপর শন মার্শ (২) এবং বিপজ্জনক হয়ে উঠতে থাকা খাজা (২৮) তিনই জনই অশ্বিনের ভেল্কির শিকার।

পাঁচ নম্বরে নামা পিটার হ্যান্ডসকম্বকে (৩৪) ফেরত পাঠান বুমরা। অজি অধিনায়ক টিম পেনকে (৫) এরপর নেন ইশান্ত। ১২৭ রানে ছয় উইকেট খুইয়ে অস্ট্রেলিয়া তখন ধুঁকছিল। কিন্তু, এই অবস্থা থেকে ছয় নম্বরে নামা ট্র্যাভিস হেড বের করে আনেন দলকে। দিনের শেষে ৬১ রানে অপরাজিত রয়েছেন তিনি। প্যাট কামিংসের সঙ্গে সপ্তম উইকেটে মূল্যবান ৫০ রান যোগ করেন ট্র্যাভিস। যা অস্ট্রেলিয়াকে লড়াইয়ে ফেরায়। দ্বিতীয় নতুন বল নেওয়ার পর কামিংসকে ফেরান জশপ্রীত বুমরা। কিন্তু ট্র্যাভিসকে ফেরানো যায়নি। মিচেল স্টার্ক (৮) অপরাজিত রয়েছেন তাঁর সঙ্গে।

তবে, যে ভাবে দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয়ার্ধে স্পিনের কেরামতি দেখা গেল, তাতে আগামী দিনে দল নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে। রবীন্দ্র জাদেজাকে দল না নেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই কেউ কেউ মুণ্ডপাত করতে শুরু করেছেন শাস্ত্রী-কোহলিদের। যদি প্রথম ইনিংসে অশ্বিন আরও কয়েকটা উইকেট তুলে নিতে পারেন, তা হলে সেই অভিযোগ একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাবে না। তিনিই দলের সফলতম বোলার। ৩৩ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৫০ রানে নিয়েছেন তিন উইকেট। বাকি চার উইকেট ভাগ করে নেন ইশান্ত (২-৩১) ও বুমরা (২-৩৪)।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা