১৯ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীতে বাদশাকে নিয়ে মাঠের প্রচারে লিটন

রাজশাহীতে বাদশাকে নিয়ে মাঠের প্রচারে লিটন

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ প্রতীক বরাদ্দের পর রাজশাহী সদর আসনে মহাজোট প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশাকে সঙ্গে নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেছেন ১৪ দলের নেতাকর্মীরা। রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী এ সময় বাদশার সঙ্গে ছিলেন।

সোমবার সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা এসএম আবদুল কাদের প্রতিক বরাদ্দ করেন। প্রতিক বরাদ্দের সময় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, রাজশাহী ১৪ দলের সমন্বয়ক এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকারসহ ১৪ দলের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিক বরাদ্দ পাওয়ার পর রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, জনগণ উন্নয়ন চায়। তারা উন্নয়নের সঙ্গে থাকতে চায়। এ জন্য নির্বাচনে নৌকার বিজয় হবে। বিএনপির প্রার্থীকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবছেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে বাদশা বলেন, তাদের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন তা এখনও ঠিক নেই। সুতরাং এমন ছন্নছাড়া দলের প্রার্থীকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবার কোনো কারণ নেই।

এ সময় মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, দেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে উঠে গেছে। এ থেকে বিচ্যুতি হওয়া যাবে না। যদি হয় তবে এর চেয়ে দুর্ভাগ্যের কিছু হতে পারে না। আর বিএনপি তো জামায়াত-শিবির ছাড়া বিএনপি চলতে পারে না। জনগণ জামায়াত-শিবিরকে প্রত্যাখান করবে, বিএনপিকেও প্রত্যাখান করবে।

এ সময় রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মাহাফুজুল আলম লোটন, মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, মোহাম্মদ আলী কামাল, শফিকুর রহমান বাদশা, মোজাফফর হোসেন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোস্তাক আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আসালাম সরকার, আজিজুল আলম বেন্টু, ক্রীড়া সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু ও নগর জাতীয় পার্টির সভাপতি খন্দকার মোশাররফ হোসেন ডালিম উপস্থিত ছিলেন।

পরে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে ‘নৌকা’, ‘নৌকা’ স্লোগানে চারপাশ মুখরিত করে তোলেন নেতাকর্মীরা। প্রার্থী ফজলে হোসেন বাদশাকে নিয়ে তারা আদালত চত্বরে গনসংযোগও করেন। এ সময় মেয়র লিটন ও সংসদ সদস্য বাদশা বার ভবনে গিয়ে আইনজীবিদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। তারা নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান।