১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সামান্য ভুলে এ কি হাল নারীর?

সামান্য ভুলে এ কি হাল নারীর?

অনলাইন ডেস্ক ॥ অস্বস্তি ছিল ঠোঁটের ফুলে ওঠা মাংসপিণ্ড নিয়ে। সেটা সারাতে গিয়েই শেষমেশ চরম অবস্থায় পড়তে হলো র্যাচেল নেপিয়ার নামের লিস্টারশায়াররের এক তরুণীকে। ফেসবুকে নিজের ওয়ালেই তিনি শেয়ার করেছেন তার ভয়ানক অভিজ্ঞতা।

র্যাচেল জানিয়েছেন, ছোটবেলায় দরজায় ধাক্কা লেগে তার ঠোঁটে চোট লাগে। তারই ফলশ্রুতি ঠোঁটে একটি মাংসপিণ্ড গজিয়ে ওঠে। তখন তার বয়স ১৩। এখন র্যাচেলের বয়স ২৯। তিনি ওই মাংসপিণ্ড সারানোর কথা বলেছিলেন এক বিউটিশিয়ানের সঙ্গে। র্যাচেলকে ‘বোটক্স থেরাপি’ করাতে বলেন তিনি। সেইমতো তাঁর কপালে ইনজেকশন দেওয়া হয়।

এর পরেই ঘটে বিপত্তি। বাড়ি ফিরতে না ফিরতে যন্ত্রণা। আস্তে আস্তে তিনি লক্ষ করেন, তার ঠোঁট ফুলে যাচ্ছে। শেষমেশ ঠোঁট ফুলতে ফুলতে অতিকায় আকার ধারণ করে। হাসপাতালে যেতে বাধ্য হন তিনি।

র্যাচেল ফুঁসে উঠেছেন প্রতিবাদে। চিকিৎসক ছাড়া বাকি যারা ইনজেকশন দেন, তাঁদের বিরুদ্ধে ফাইল করেছেন পিটিশন। ব্রিটেনের পার্লামেন্টের কাছে জমা দেওয়া ওই পিটিশনে অনেকেই সই করেছেন। ফেসবুকে তিনি সেটি শেয়ারও করেছিলেন। আর তাতেই মেলে সাড়া।