২১ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মানুষ ব্যালটের মাধ্যমে জবাব দিবে ॥ তোফায়েল

মানুষ ব্যালটের মাধ্যমে জবাব দিবে ॥ তোফায়েল

নিজস্ব সংবাদদাতা, ভোলা ॥ ভোলা-১ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, এতো নিষ্ঠুর এই বিএনপি। ওরা যদি আবার ক্ষমতার সাদ পায় এক লক্ষ লোক প্রথম দিনেই হত্যা করবে। তবে সেই আশা সফল হবেনা । কারণ নির্বাচনের মাঠে গিয়ে দেখেছি, ২০০১ সালে অত্যাচর নির্যাতন হত্যা ও নারী ধর্ষণের কথা মানুষ ভুলেনি। ব্যালটের মাধ্যমে আগমী ৩০ ই ডিসেম্বর তার জবাব দিবে বাংলার মানুষ । প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারও বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী হবে। বাংলাদেশ আজ আন্তর্জাতিক বিশ্বে মর্যাদাশীল দেশ। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। মানুষ অবাক হয় বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে ।

আজ বুধবার বেলা ১২ টায় ভোলা-১ আসনের আওয়ামীলীগের মনোনিত প্রার্থী ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ তার গাজীপুর রোডের বাসভবনে সাংবাদিক সম্মেলনে এ সব কথা বলেন।

এসময় মন্ত্রী আরো বলেন, আমরা চাই একটি অবাধ ও নিরপেক্ষ মূলক নির্বাচন যা হতে চলেছে। বিএনপি তাতে অংশগ্রহন করেছে। তারা বলেছে নির্বাচনে অংশগ্রহন করবেই। আমরাও চাই তারা নির্বাচনের মাঠে থাকুক। তিনি বলেন, ২০০১ সনের পর দেশে বিএনপি সিমাহীন অত্যাচার করেছি। অকল্পনীয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভোলাতে এসেছিলো। আমরা তার জন্য ডায়াস করতে পারিনি। ট্রাকের উপর দাড়িয়ে মিটিং করেছেন।

তোফায়েল বলেন, বিএনপি’র প্রার্থীরা এখন পর্যন্ত মাঠে যায়নি। আর গত ৩ মাস ধরে আমরা সাধারন মানুষের ঘরে ঘরে গিয়েছি। উঠান বৈঠক, পথসভার মাধ্যমে নির্বাচনী মাঠে রয়েছি। কোন জোর জবরদস্তির মধ্যে আওয়ামী লীগ নেই। গত ১০ বছর ভোলায় আমাদের দ্বারা বিএনপির কেউ অত্যাচারিত হয়নি।

আওয়ামী লীগ প্রবীন এই উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ভোলার নদী ভাঙ্গন সমস্যার কথা উল্লেখ করে আরো বলেন, সরকারের আন্তরিকতা ও ৩ হাজার ২ শ কোটি টাকা ব্যায়ে ভোলায় নদী ভাঙ্গা আজ রোধ করা সম্ভব হয়েছে। এতে করে সাধারণ মানুষ খুবই আনন্দিত। যার প্রতিফলন আসন্ন নির্বাচনে তারা দেখাবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এখানে প্রচুর গ্যাস রয়েছে। সেই গ্যাস দিয়ে ইন্ড্রাসট্রি হচ্ছে। ভোলায় ১৮’শ মেঘাওয়াট বিদ্যূৎ কেন্দ্র হবে। ভোলাকে শিল্প নগরী হিসাবে গোড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে। বেকারদের কর্মসংস্থানের সুজোগ হবে। ভোলা হবে বাংলাদেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ জেলা।

তিনি বলেন, ভোলার এক সময়ের বিচ্ছিন্ন চর ভেলুমিয়া ও ভেদুরিয়া ইউনিয়নে আগে পায়ে হাটতে হতো। একটা ইট ছিলোনা। সরকারের ব্যাপক উন্নয়নে আজকে সেই জনপদের মানুষ ১০ মিনিটে সড়ক পথে ভোলা সদরে আসে। সেখানে রাস্তা-ঘাট পাকা, বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত। দেখলে শহর মনে হয়। ব্যাংকের হাটে ১০১ কোটি টাকা ব্যায়ে টেক্সটাইল ইনিষ্ট্রিটিউট নির্মাণ করা হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ভোলা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলার চেয়ারম্যান মোঃ মোশারেফ হোসেনসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ। অপর দিকে বিকালে ভোলার চরসামাইয়া ও বাপ্তা ইউনিয়নে পৃথক ২টি পথ সভায় বক্তব্য রাখেন।