২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাপার ২০ সদস্যের নির্বাচন পরিচালনা সেল গঠন

জাপার ২০ সদস্যের নির্বাচন পরিচালনা সেল গঠন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে আজ ইশতেহার ঘোষণা করা হবে। দলটির চেয়ারম্যান বিদেশে থাকায় তার পক্ষে দ্বিতীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যাক্তি হিসেবে সাবেক মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার বনানী কার্যালয়ে ইশতেহার ঘোষণা করবেন। ইশতেহারে দেশকে সাত প্রদেশে ভাগ করা সহ যুব সমাজের উন্নয়ন, বিণিয়োগ বৃদ্ধি ও আরো বিভিন্ন বিষয় যুক্ত হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এদিকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে নির্বাচন পরিচালনা সেল গঠন করা হয়েছে। সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর অনুমোদন ক্রমে ইতোমধ্যেই দলের মনিটরিং সেল কাজ শুরু করেছে। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান কে মনিটরিং সেলের আহবায়ক করা হয়েছে। বিশ সদস্য বিশিষ্ট মনিটরিং সেলের সদস্য সচিব করা হয়েছে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা।

কমিটির অন্যান্য সদস্য হচ্ছেন প্রেসিডিয়াম সদস্য এসএম ফয়সল চিশতী, মোঃ শফিকুল ইসলাম সেন্টু, আলমগীর শিকদার লোটন, নুরুল ইসলাম নুরু, মোঃ আরিফুর রহমান খান, আমানত হোসেন আমানত, শফিউল্লাহ শফি, মোস্তাফিজুর রহমান নাঈম, সাইফুল ইসলাম পিটু, মোঃ হেলাল উদ্দিন, সুলতান মাহমুদ, এমএ রাজ্জাক খান, গোলাম মোস্তফা, কাজী আবুল খায়ের, সুমন আশরাফ, সৈয়দ মোঃ ইফতেখার আহসান হাসান, মোঃ মিজানুর রহমান মিরু, খন্দকার দেলোয়ার জালালী।

এবারের সংসদ নির্বাচনে মহাজোট গঠনের মধ্য দিয়ে অংশ নিচ্ছে জাতীয় পার্টি। প্রথমে জোটের প্রধান শরিক আওয়ামী লীগের কাছে ১০০ আসন চায় দলটি। এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক ভাবে এরশাদ ও রওশনের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরে জাপার পক্ষ থেকে ৭০টি আসন চেয়ে তালিকা পাঠানো হয়। কিন্তু আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বারবার বলা হচ্ছিল জোটের শরিকদের জন্য সর্বোচ্চ ৭০টি আসন ছাড় দেয়া হতে পারে। শেষ পর্যন্ত ৬০টি আসন ছাড় দেয় আওয়ামী লীগ। এরমধ্যে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাদের জন্য ২৯ আসন ছাড় দেয়া হয়েছে। এছাড়া আরো ১৩টি আসনে মহাজোটের পক্ষ থেকে উভয় দলের প্রার্থী রাখা হয়েছে। নির্বাচনী কৌশল গত কারণ দেখিয়ে উভয় দলের প্রার্থী রাখার কতা জানানো হয়েছে জাপা ও আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে।

কিন্তু আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সর্বশেষ জানানো হয়েছে ২৬টি আসন জাপাকে ছাড়ের কথা। এই প্রেক্ষিত্রে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে সব মিলিয়ে ১৭৪টি আসনে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।