১৮ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হবিগঞ্জে সংর্ঘষে নিহত ১, আহত ৭৫

হবিগঞ্জে সংর্ঘষে নিহত ১, আহত ৭৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, হবিগঞ্জ ॥ রাজনৈতিক ক্ষমতার দাপটে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে হবিগঞ্জের উপজেলা বানিয়াচঙ্গের পল্লী নওগাঁয় আওয়ামীলীগ নেতা ও এক ইউপি সদস্যের পক্ষাবলম্বনকারী দু’দল সশস্ত্র লোকের মধ্যে ভয়াবহ রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের ঘটনায় মতিউর রহমান (৪৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত এবং আহত হয়েছে কমপক্ষে ৭৫ জন। নিহত ব্যক্তি সংশ্লিস্ট গ্রামের মৃত আব্দুল ওয়াহাবের পুত্র এবং আওয়ামীলীগ নেতা ফরিদ মিয়া ও ইউপি সদস্য তালেব গ্রুপের লোক।

এদিকে গুরুতর আহত বেশ কয়েকজনকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল সহ স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তন্মধ্যে মুমুর্ষ অবস্থায় উভয় গ্রুপের সমর্থক নূর মিয়া, আব্দুল ওয়াদুত ও মকবুল হোসেনকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। পুলিশ ও গ্রামবাসীরা জানান, প্রায় ৭ মাস যাবত ওই উপজেলার বড়ইউড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ফরিদ মিয়া ও সংশ্লিস্ট ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য প্রভাবশালী তালেব গ্রুপের সদস্য আরজু মিয়ার সাথে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ক্ষমতার দ্বন্দ্ব চলছিল। তবে আরও একটি সূত্র মতে, এ রকম বিরোধ ছাড়াও সংশ্লিস্ট গ্রামের বাসিন্দা আব্দুর রউফের ছেলে মুসা মিয়া ও ফরিদ মিয়ার মাঝে একটি জলমহাল নিয়েও খানিকটা বিরোধ চলছিল। ফলে ফরিদ মিয়া, আরজু ও মুসার পক্ষাবলম্বনকারীরা প্রতিদিনই তর্কে-বির্তকে জড়িয়ে পড়তেন।

এরই জের ধরে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে দু’পক্ষ তুমুল সংর্ঘষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী এই সংর্ঘষ চলাকালে উভয় পক্ষই দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করে। এদিকে খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

এ ঘটনায় সংশ্লিস্ট গ্রামে এখনও উভয় পক্ষের মাঝে উত্তজেনা বিরাজ করছে। পুলিশ একজনকে আটক করেছে।