১৩ ডিসেম্বর ২০১৮

প্রচারে সরগরম সিরাজগঞ্জ সদর

স্টাফ রিপোর্টার, সিরাজগঞ্জ ॥ নৌকার প্রচারে সরগরম সিরাজগঞ্জ-২ (সদর- কামারখন্দ) আসন। পাড়ায়-মহল্লায় চলছে সরব প্রচার। ‘মুন্না ভাইয়ের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন’, উন্নয়নের মার্কা- নৌকা মার্কা’ মুন্না ভাইয়ের মার্কা নৌকা মার্কা ’ ইত্যাদি নানা সেøাগানে সেøাগানে পাড়া-মহল্লা জেগে উঠেছে। পোস্টারে ছেয়ে গেছে সমগ্র এলাকা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এসব স্লোগান সম্বলিত মাইকের শব্দে গোটা নির্বাচনী এলাকা উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। শুধু স্লোগান নয়, গানে গানে উন্নয়নের ফিরিস্তি জানান দিয়েও নৌকার পক্ষে জনগণকে জাগিয়ে তোলা হচ্ছে। কিন্তু এখনও মাঠে নামেনি বিএনপি প্রার্থী ও তাদের সমর্থকরা। কোথাও পোস্টার লিফলেট পর্যন্ত নেই।

সিরাজগঞ্জ-২ আসনটিতে অত্যন্ত মর্যাদাপূর্ণ। সিরাজগঞ্জ পৌরসভা, সদর উপজেলার ৫ ইউনিয়ন ও কামারখন্দ উপজেলার চার ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত এ আসনে মোট ভোটার তিন লাখ ছিয়াশি হাজার এক শ’ আটাশ। নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সংখ্যা চার। এরা হচ্ছে বিএনপির রুমানা মাহমুদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মুফতি মুহিব্বুল্লাহ ও বাম গণতান্ত্রিক ঐক্যজোট মনোনীত বাসদের নব কুমার কর্মকার। প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মুন্না প্রচারে নেমেছেন। প্রতিদিন সকাল থেকে প্রার্থী নিজে ও তার কর্মী সমর্থকরা পৃথকভাবে নির্বাচনী এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। আওয়ামী লীগ ছাড়াও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মুফতি মুহিব্বুল্লাহ ও বাম গণতান্ত্রিক ঐক্যজোট মনোনীত বাসদের নব কুমার কর্মকার প্রচার শুরু করেছেন।

তবে এখনও মাঠে নামেনি বিএনপি। এ প্রসঙ্গে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান বলেন, আমাদের নির্বাচনী প্রস্তুতি রয়েছে। আসনটি বিএনপির ভোট ব্যাংক উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানে ধানের শীষে ভোট দেয়ার জন্য জনগণ মুখিয়ে রয়েছে। দলের প্রার্থী রুমানা মাহমুদ এ আসনে এর আগেও এমপি ছিলেন। তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয়। প্রচারে সুযোগ পেলেই এখানে আমাদের প্রার্থী বিপুল ভোটে জয়লাভ করবেন।