২১ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নির্বাচনকে ঘিরে চট্টগ্রামে বাড়ছে উৎসবের আমেজ

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে, উৎসবের আমেজও ততই বাড়ছে। প্রার্থীদের দম ফেলার ফুরসত নেই, কাটছে নির্ঘুম রাত। প্রতিদিনই চষে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনী এলাকার অলিগলি ও পাড়ামহল্লা। বুকে জড়িয়ে ধরছেন ভোটারদের। কেননা, বিশেষ এ সময়ে ভোটাররা খুবই মূল্যবান। সরকার দলীয় প্রার্থীরা তুলে ধরছেন উন্নয়নের ফিরিস্তির পাশাপাশি ভবিষ্যত পরিকল্পনা ও প্রতিশ্রুতি। অপরদিকে, প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির নেতৃত্বাধীন জোট প্রার্থী ও নেতাদের বক্তব্যে উঠে আসছে দীর্ঘ সময়ের গণতন্ত্রহীনতা এবং বঞ্চনার চিত্র।

চট্টগ্রাম মহানগরী ও জেলার ১৬টি আসনেই এখন ভোটের আমেজ। শুরুতে বিএনপি প্রার্থীরা প্রচারে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও কর্মী সমর্থকদের নিয়ে তারা মাঠে নেমে পড়েছেন। এখনও প্রচার মূলত গণসংযোগ এবং ছোটখাটো বৈঠকের মধ্যে সীমাবদ্ধ রয়েছে। দিনভর চলছে প্রতীকের সমর্থনে মাইক প্রচার।

চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বৃহস্পতিবার গণসংযোগ চালান নগরীর চকবাজার ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায়। নওফেলের গণসংযোগে যোগ দেন সদ্য সাবেক হওয়া প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি এবং মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনসহ নগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। আওয়ামী লীগ প্রার্থী নওফেল ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, চট্টগ্রামসহ সারাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০ বছর শাসনামলে যে উন্নয়ন কর্মকা- অব্যাহত রয়েছে তার ধারাবাহিকতা রক্ষায় নৌকা প্রতীকের বিজয় ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই। স্বাধীনতাবিরোধী, যুদ্ধাপরাধী, পেট্রোলবোমায় নিরীহ মানুষ হত্যাকারী ও তাদের দোসরদের ভোটের মাধ্যমে উপযুক্ত জবাব দিতে হবে। একটি অপশক্তি নির্বাচন বানচাল করে পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা দখল করে দেশকে আবারও পাকিস্তান বানাতে চায়। এদের প্রতিহত করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে হবে। এ লড়াইয়ে জিততেই হবে।

নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, নওফেল আমার সন্তানতুল্য এবং তারুণ্যের অহঙ্কার। তাকে নিয়ে আমরা উজ্জ্বল ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখি। নওফেল বিজয়ী হলে কোতোয়ালি, বাকলিয়া, চকবাজার ও ডবলমুরিং সংসদীয় আসনে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে যাবে। মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, চট্টগ্রাম মহানগরী ও সংলগ্ন দুটি আসনসহ ৬টি আসনেই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে তৃণমূলের নেতাকর্মীদের প্রতিটি মুহূর্ত কাজে লাগাতে হবে। একই আসনে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ডাঃ শাহাদাত হোসেনের পক্ষে গণসংযোগ চালান দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও আবদুল্লাহ আল নোমান। ডাঃ শাহাদাত কারাগারে থাকায় নেতাকর্মীরা বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ধানের শীষের পক্ষে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। চট্টগ্রাম-১০ (ডবলমুরিং-হালিশহর) আসনে বৃহস্পতিবার বিশাল কর্মী বাহিনী নিয়ে ব্যাপক গণসংযোগ করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী ডাঃ আফসারুল আমিন। তিনি টাইগারপাস, আমবাগান, পাহাড়তলীসহ বিরাট এলাকায় হেঁটে ভোট প্রার্থনা করেন। কর্মীরা মুখে স্লোগানের পাশাপাশি হাতে হাতে ফেস্টুন, প্ল্যাকার্ড বহন ও প্রচারপত্র বিলি করেন। প্রচারে ও স্লোগানে মূলত উঠে আসে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমানের গণসংযোগও পরিচালিত হয় নির্বাচনী এলাকায়। এদিন তিনি গণসংযোগ করেন শুলকবহর ওয়ার্ডের আবদুল লতিফ সড়ক, মির্জাপুল, নিজ শহর, শেখ বাহারুল্লাহ লেন এলাকায়। এ সময় ভোটারদের উদ্দেশে বক্তব্যে তিনি বলেন, সরকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ব্যবহার করে ক্ষমতা কুক্ষিগত করার ষড়যন্ত্র করছে।

নির্বাচিত সংবাদ