২১ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত যুবলীগ নেতা জহির মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নির্বাচনী সহিংসতায় প্রতিপক্ষের গুলিতে গুরুতর আহত যুবলীগ নেতা ইউপি সদস্য মোঃ জহির (৩২) ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার মাথায় দুটি গুলিবিদ্ধ হয়েছে। পিঠে ধারালো অস্ত্রের গভীর ক্ষত চিহ্ন রয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। হাসপাতালের বেডে একমাত্র ছেলে জহিরের শিয়রে বসে থাকা ষাটোর্ধ মা রওশন আরা বেগম জানান, সন্ত্রাসীরা ছেলেকে গুলি করে ক্ষ্যান্ত হয়নি। এখন ওরা বাড়িতে হামলা চালিয়ে তিন নাতিকে তুলে নেয়ার চেষ্টা চালিয়েছে। বাড়ির মহিলাদের মারধর করেছে। ছেলে আওয়ামী লীগ করার জের ধরে এলাকার চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা শিপন তার বিএনপি ক্যাডারদের দিয়ে বাড়িতে হামলা ও ভাংচুর চালিয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে হাসপাতালে আহত যুবলীগ নেতা মোঃ জহির জনকণ্ঠকে জানান, তিনি নোয়াখালী সদর মাইজদী ৮নং ইউনিয়নের দুইবার নির্বাচিত ইউপি সদস্য। তিনি জানান, সদরের পেশাদার ইয়াবা বিক্রেতা শিপন আমাকে জানে মেরে ফেলার জন্য গুলি চালিয়েও ক্ষ্যান্ত হয়নি। আজ (বৃহস্পতিবার) বিকেল ৪টার দিকে শিপন দলবল নিয়ে তার খলিফাহার্টে কসাই বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। পুরোবাজার ফাঁকা গুলি ছুড়তে ছুড়তে আতঙ্ক ছড়িয়ে বাড়িতে ঢুকে মহিলাদের লাঞ্ছিত করেছে। তার তিন সন্তানকে তুলে নেয়ার চেষ্টা চালিয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, এর আগে নোয়াখালী সদরে এয়োজবালিয়া ইউনিয়ন বিএনপি-জামায়াত ক্যাডাররা ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফকে গুলি ও কুপিয়ে হত্যা করে।