২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কাঁথা-বালিশ নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে লতিফ সিদ্দিকী

কাঁথা-বালিশ নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে লতিফ সিদ্দিকী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী লতিফ সিদ্দিকীর নির্বাচনী প্রচারণার গাড়িবহরে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়েছে। রবিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার গোহালিয়া ইউনিয়নের সরাতৈল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আর এই ঘটনার প্রতিবাদে দুপুর ২টা থেকে জেলা প্রশাসক ও রির্টানিং কর্মকর্তার অফিসের সামনে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করেছেন তিনি। প্রতিবাদের এক পর্যায়ে বাসা থেকে কাঁথা-বালিশ এনে, সেখানে শুয়ে পড়েন তিনি।

হামলার বিষয়ে লতিফ সিদ্দিকী বলেন, সকালে কালিহাতীর গোহালিয়া বাড়ি এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণায় যাওয়ার সময় সেখানকার স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বর্তমান সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খানের ইন্ধনে আমার গাড়িবহরে হামলা করে। তারা আমার ব্যাক্তিগত গাড়িসহ আরও তিনটি গাড়ি ভাঙচুর করেছে। এ সময় ইট-পাটকেলের আঘাতে আমার কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, যে পর্যন্ত নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ তৈরি না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি অবস্থান কর্মসূচি পালন করে যাবেন। বিকেল ৪টার দিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত জেলা প্রশাসক ও রির্টানিং কর্মকর্তার অফিসের সামনে অবস্থান করছিলেন।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের নির্বাচনের পর মহাজোট সরকারে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। পরে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্যও হন তিনি। ২০১৪ সালের নির্বাচনে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টাঙ্গাইল-৪ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এ সময় তিনি তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান।

২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে নিউইয়র্কের একটি অনুষ্ঠানে হজ, তাবলিগ জামাত এবং দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ সম্পর্কে বেফাঁস মন্তব্য করে দেশ ও বিদেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে সর্বোচ্চ সমালোচিত হন আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। পরে দল ও সবধরণের পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেয় আওয়ামী লীগ।