১৯ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কক্সবাজারে নৌকার কার্যালয়ে আগুন ॥ ভোলায় বাড়ি ভাংচুর, পটিয়ায় ফাঁকা গুলি

  • নির্বাচনী সহিংসতা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর সতর্কতার মধ্যেও দেশের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী সহিংসতা বন্ধ হয়নি। শনিবার গভীর রাতে এবং রবিবার হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের একাধিক ঘটনায় প্রার্থীদের প্রচার বাধাগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে কক্সবাজারে নৌকা প্রার্থীর কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ করে দুর্র্বৃত্তরা। নীলফামারীর ডোমারে জামায়াত-শিবিরের কর্মীদের ইট-পাটকেল নিক্ষেপে তিন পুলিশ সদস্য আহত হন। এসব ঘটনায় আটক করা হয় ৪ জনকে।

চট্টগ্রামের পটিয়ায় যুবলীগের এক নেতার গাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছে। ভোলার বোরহানউদ্দিনে বিএনপির সন্ত্রাসীদের তান্ডবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ অফিস ও মাইক্রোবাস ভাংচুর করা হয়। এ সময় আগুন দেয়া হয় ২০টি মোটরসাইকেলেও। পটুয়াখালীর গলাচিপায় প্রতিপক্ষে হামলায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কার্যালয় ভাংচুর করা হয়। এ সময় সেখানে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটে। নেত্রকোনার মদনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এ সময় সিপিবির গণসংযোগে হামলা চালানো হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এক প্রার্থীকে লাঞ্ছিত এবং গাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের।

লক্ষ্মীপুর ॥ বাংলানিউজ জানায়, লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনে ধানের শীষ প্রতীকধারী জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ও জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করার অভিযোগ উঠেছে। এরপর ওই অফিসে তালা মেরে দেয়ার দাবিও করা হচ্ছে জেএসডির তরফ থেকে। রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রামগতি উপজেলার বড়খেরী ও চরগাজী ইউনিয়নে রবের নির্বাচনী অফিস দুটিতে ভাংচুর চালিয়ে তালা মেরে দেয়া হয়। এজন্য আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাকর্মীদের দোষারোপ করছে ঐক্যফ্রন্ট। এ বিষয়ে জেএসডির সহ-সভাপতি তানিয়া রব বলেন, স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে আমাদের অফিস ভাংচুর করে তালা দেয়। তারা জেএসডি ও বিএনপি নেতাকর্মীদের এলাকা ছাড়তে হুমকি দিচ্ছে। এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করতে মহড়া দিচ্ছে। এ বিষয়ে থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াহেদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিছুল হক বলেন, হামলা-ভাংচুর নয়। অফিসে তালা দিয়েছে বলে শুনেছি। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।