২৪ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পটিয়ায় আ’লীগ নেতার ঘরে পুলিশের দুই ঘন্টা তল্লাশি

পটিয়ায় আ’লীগ নেতার ঘরে পুলিশের দুই ঘন্টা তল্লাশি

নিজস্ব সংবাদদাতা,পটিয়া ॥ পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পটিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোফরান রানার ঘরে রবিবার গভীর রাতে পুলিশ দুই ঘন্টা তল্লাশি চালিয়েছে। গোফরানের ছোট ভাই হাবিবুর রহমান রিপন বিএনপির প্রার্থী এনামুল হক এনাম সমর্থিত ছাত্রদল নেতা। পুলিশ মূলত ঘরে তল্লাশি চালিয়ে রিপনকে গ্রেফতারের চেষ্টা করেছিল। তবে গ্রেফতার করতে পারেনি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিএনপির প্রার্থী এনামুল হক এনামের সমর্থিত ছাত্রদল নেতা রিপন পটিয়া পৌরসভা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গোফরান রানার ছোট ভাই। আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পটিয়ায় আ’লীগের প্রার্থী সামশুল হক চৌধুরীসহ ৯জন প্রার্থী রয়েছে। নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক রাখতে উপজেলা ও পৌরএলাকার বিভিন্ন ইউনিয়নে ধরপাড়ক শুরু হয়েছে। পুলিশ এই পর্যন্ত বিএনপির ১৩জনকে নেতাকর্মীকে বিস্ফোরক মামলায় গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণও করেছে। রবিবার গভীর রাতে আ’লীগ নেতা গোফরান রানার ছোট ভাই ছাত্রদল নেতা রিপনকে ধরতে পুলিশ তাদের বাড়ি গিয়ে তল্লাশি চালান। পুলিশ প্রতিটি রুমে তল্লাশি চালালেও রিপনকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

পটিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও আ’লীগ নেতা গোফরান রানার অভিযোগ, পটিয়া উপজেলা ও পটিয়া পৌরসভার বিভিন্ন ইউনিয়নে একই পরিবারে আওয়ামী লীগ, বিএনপি এমনকি জামায়াত পর্যন্ত রয়েছে। অথচ তাদের গ্রেফতার না করে তার ভাইকে রিপনকে গ্রেফতার করতে পুলিশ প্রতিটি রুমে রুমে তল্লাশি চালিয়েছে। যা খুবই দুঃখজনক। ছাত্ররাজনীতি থেকে শুরু করে গোফরান রানা ছাত্রলীগের সভাপতিসহ দলের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে সর্বক্ষেত্রে ভুমিকা রেখেছেন। আ’লীগ পরিবার ও সাধারণ কোন মানুষের ঘরে গিয়ে যদি এই ধরনের ঘটনা পুনরায় ঘটে তাহলে নৌকার ভোটে প্রভাব পড়বে। এইজন্য গোফরান সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

পটিয়া থানার ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, ছাত্রদল নেতা রিপনকে গ্রেফতার করতে পুলিশ তল্লাশি চালিয়েছিল। তবে তাকে পাওয়া যায়নি। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সে সক্রিয় ছিল। বিভিন্ন ঘটনার সঙ্গে তাকে সন্দেহ হওয়ায় গ্রেফতারের চেষ্টা করা হয়েছে।