২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

লিভারপুলকে মৌসুমের প্রথম হার উপহার সিটির

লিভারপুলকে মৌসুমের প্রথম হার উপহার সিটির

অনলাইন ডেস্ক ॥ লিভারপুল বনাম ম্যানচেস্টার সিটির ম্যাচটিকে বলা হচ্ছিল ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ফাইনাল। দুই দলের পয়েন্ট ব্যবধানের কারণেই তা বলা হচ্ছিল। টেবিলের শীর্ষে থাকা লিভারপুলের চেয়ে ৭ পয়েন্ট পিছিয়ে ছিল ম্যান সিটি। আর এই ম্যাচটি হারলে সেটি গিয়ে দাঁড়াত দশে। তাই ম্যাচটি ছিল সিটির জন্য বাঁচা-মরার।

বৃহস্পতিবার সেই বাঁচা-মরার ‘ফাইনালে’ জয় পেয়েছে ম্যান সিটিই। ইতিহাদ স্টেডিয়ামে ২-১ গোলে জিতে লিভারপুলকে মৌসুমের প্রথম হারের স্বাদ উপহার দিল পেপ গুয়ার্দিওলার দল। সেই সাথে ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যদের চেয়ে ৪ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শীর্ষে থাকা লিভারপুলের পয়েন্ট ৫৪। অন্যদিকে দুই নম্বরে থাকা টটেনাহ্যাম নেমে গেছে তিন নম্বরে। তাদের পয়েন্ট ৪৮।

এদিন সিটির ঘরের মাঠে ম্যাচটি ছিল দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ। দুই দলই জয়ের জন্য মরিয়া হয়ে গিয়েছে আক্রমণে। তবে প্রথম সাফল্যটি পায় ম্যান সিটিই। ম্যাচের ৪০ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরোর পা থেকে আসে স্বাগতিকদের প্রথম গোল।

পিছিয়ে পড়ে পাল্টা আক্রমণে যায় লিভারপুলও। কিন্তু প্রথমার্ধে কোন পক্ষই আর গোল করতে পারেনি। বিরতি থেকে ফিরে সমতায় ফিরতে মরিয়া চেষ্টা চালায় অতিথিরা। ম্যাচের ৫২ মিনিটে লিভারপুলের পেনাল্টির আবেদনে সাড়া দেননি রেফারি। ডি-বক্সের ভেতর রাহিম স্টার্লিং অ্যান্ড্রু রবার্টসনকে ফেলে দিলে পেনাল্টির আবেদন করে লিভারপুল।

ম্যাচের ৬৪ মিনিটে সমতায় ফেরে লিভারপুল। আলেকজান্ডার-আরনল্ডের বাড়ানো বল রবার্টসন হয়ে চলে যায় রবের্তো ফিরমিনোর কাছে। তার তা থেকে অতিথিদের শিবিরে সমতার স্বস্তি এনে দেন এই ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। চলতি লিগে ফিরমিনোর এটি অষ্টম গোল।

তবে ম্যাচের ৭২ মিনিটে লিভারপুলের সেই স্বস্তি কেড়ে নেন লেরয় সানে। স্টার্লিংয়ের বাড়ানো বল বাঁ পায়ের কোনাকুনি শটে প্রতিপক্ষের জালে জড়ান এই জার্মান ফরোয়ার্ড। ম্যান সিটি এগিয়ে যায় ২-১ ব্যবধানে। আর এই ব্যবধান নিয়েই বছরের নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠ ছাড়ে দুই পক্ষ।