২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা, তবু কমেছে শেয়ারের দাম

ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা, তবু কমেছে শেয়ারের দাম

অনলাইন রিপোর্টার ॥ চলতি সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই)। সেইসঙ্গে একইভাবে লেনদেন হয়েছে অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই)।

বুধবার (০৯ জানুয়ারি) গ্রামীণফোন, ইসলামী ব্যাংকসহ বড় বড় কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ার পাশাপাশি ব্যাংক, বিমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং বস্ত্র, প্রকৌশল খাতে মিশ্র প্রবণতায় লেনদেন হয়েছে। ফলে এদিন সূচকের পাশাপাশি বেড়েছে লেনদেনও।

তবে মুনাফা তুলে নেওয়ার প্রবণতায় শেয়ার বিক্রির চাপে কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম। এর ফলে সোমবার (০৭ জানুয়ারি) মূল্য সংশোধনের পর মঙ্গলবার (০৮ জানুয়ারি) ও বুধবার দু’দিন আবারও বাড়লো সূচক। ডিএসইর তথ্যমতে, বুধবার বাজারে ২৭ কোটি ৮৬ লাখ ৮০ হাজার ১৮৬টি শেয়ারের হাতবদল হয়েছে। এতে লেনদেন হয়েছে এক হাজার ২৫ কোটি ৭৩ লাখ ৫৭ হাজার টাকা। এর আগের দিন লেনদেন হয়েছিল এক হাজার ১০ কোটি তিন লাখ ২৫ হাজার টাকার। তারও আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৯৬৫ কোটি ৫৩ লাখ ৫৩ হাজার টাকা।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৭ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ৭৯৮ পয়েন্টে অবস্থান নেয়। এছাড়া অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএক্স ইনডেক্স সাত পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৩১৫ পয়েন্টে। আর ডিএসই-৩০ ইনডেক্স নয় পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়ায় দুই হাজার ১১ পয়েন্টে। বুধবার ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানির মধ্যে শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৪৮টির, কমেছে ১৬১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির।

অন্যদিকে, সিএসইতে সার্বিক সূচক ৬৭ পয়েন্ট বেড়ে ১৭ হাজার ৭৮৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এ বাজারে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে শেয়ারের দাম বেড়েছে ১২৩টির ও কমেছে ১২৩টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। সিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৬২ কোটি ৯৫ লাখ ৪৪ হাজার টাকা।