১৯ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মার্কিন হুমকি সত্ত্বেও অ্যারোস্পেস কর্মসূচি চলবে ॥ ইরান

মার্কিন হুমকি সত্ত্বেও অ্যারোস্পেস কর্মসূচি চলবে ॥ ইরান

অনলাইন ডেস্ক ॥ ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, মার্কিন হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও তার দেশের অ্যারোস্পেস বা মহাকাশ গবেষণা কর্মসূচি চলবে। আন্তর্জাতিক কোনো আইনে এই ধরনের কর্মসূচির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়নি বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন।

জারিফ সম্প্রতি ভারত সফরের সময় বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে একথা জানান। পাশ্চাত্যের সঙ্গে ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পরমাণু সমঝোতা থেকে ইরান বেরিয়ে যাবে কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে জারিফ বলেন, তার দেশ ওই সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করলেও এই মুহূর্তে এটি তেহরানের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নয়।

মহাকাশের উদ্দেশ্যে ইরানের পক্ষ থেকে কৃত্রিম উপগ্রহ নিক্ষেপের বিরুদ্ধে মার্কিন কর্মকর্তারা হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করার পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী জারিফ এসব কথা বললেন। ওয়াশিংটন দাবি করছে, মহাকাশে রকেট পাঠাতে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হয় যা নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের লঙ্ঘন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত সপ্তাহে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ইরানকে মহাকাশে কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠানোর পরিকল্পনা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান। তিনি দাবি করেন, মহাকাশে কৃত্রিম উপগ্রহ পাঠাতে আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হতে পারে। এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে আমেরিকার মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানা সম্ভব।

পম্পেও’র ওই বক্তব্যের জবাবে ইরানের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়ায় অযারি জাহরোমি সোমবার বলেন, তার দেশ শান্তিপূর্ণ মহাকাশ গবেষণা কর্মসূচি চালাতে কারো অনুমতি নেবে না।

তিনি জানান, ইরান দু’টি কৃত্রিম উপগ্রহ আকাশে নিক্ষেপের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। পাইয়াম (বার্তা) এবং দোস্তি (বন্ধুত্ব) নামক উপগ্রহ দু’টি উৎক্ষেপণের জন্য ইরানের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাদের অনুমতির অপেক্ষা করা হচ্ছে বলেও মন্ত্রী জানান।