২১ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মির্জাপুরে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী পালিয়েছে

মির্জাপুরে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী পালিয়েছে

নিজস্ব সংবাদদাতা, মির্জাপুর ॥ মির্জাপুরে শিউলী নামে এক গৃহবধুকে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী। বুধবার রাতে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে স্বামী জালাল মিয়া পালিয়েছে বলে জানা গেছে। এই হত্যার ঘটনাটি ঘটে মির্জাপুর উপজেলার আনাইতারা ইউনিয়নের পাঁচদানা গ্রামে।

পুলিশ জানায়, প্রায় ২০ বছর আগে উপজেলার চামারী ফতেপুর গ্রামের ছায়েদ আলীর ছেলে জালাল মিয়ার পার্শ্ববর্তী পাঁচদানা গ্রামের জাবেদ আলীর প্রতিবন্ধী মেয়ে শিউলী বেগমকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকেই স্বামী তাকে নানাভাবে নির্যাতন করতেন। এক পর্যায়ে জালাল মিয়া শিউলীকে না জানিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেন।

দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়েই সে বসবাস করতেন। হঠাৎ বুধবার সন্ধায় জালাল পাঁচদানা গ্রামে প্রথম স্ত্রী শিউলীর বাপের বাড়ি আসেন। রাতের খাবার শেষে দুজনেই এক ঘরে ঘুমিয়ে পরেন। রাতের কোন এক সময় জালাল স্ত্রী শিউলীকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর দরজা আটকিয়ে রাতের আধারে পালিয়ে যান। প্রতিবেশিরা সকাল নয়টা পর্যন্ত ঘরের দরজা বন্ধ দেখে ঘরের দরজা খুলে শিউলিকে বিছানার ওপর মৃত অবস্থায় দেখতে পান।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। তদন্তকারী কর্মকর্তা মির্জাপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মোশারফ হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্বামী জালাল মিয়া পেশায় রাজমিস্ত্রি হলেও সে একজন খারাপ প্রকৃতির লোক ছিল। শিউলীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর স্বামী পালিয়েছে বলে তিনি জানান।