২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডাভোস সফর বাতিল করলেন ট্রাম্প

  • আংশিক অচলাবস্থার জের ॥ জরুরী অবস্থা জারির ফের হুমকি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বৃহস্পতিবার এ মাসের শেষের দিকে সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামে যোগ দেয়ার পরিকল্পিত সফর বাতিল করেছেন। তিনি ইঙ্গিত দেন যে, তিনি ফেডারেল সরকারের আংশিক অচলাবস্থা নিয়ে রাজনৈতিক চরম পরীক্ষা দিতে প্রস্তুত রয়েছেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া, টাইম ও নিউইয়র্ক টাইমস।

ট্রাম্পের পরিকল্পনা ছিল ২১ জানুয়ারি ডাভোস সম্মেলনে যোগ দিতে সুইজারল্যান্ডের উদ্দেশে পাড়ি দেবেন। এটি এমন একটি সম্মেলন যা প্রতিবছর উচ্চপদস্থ ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, চিন্তাবিদ, শিল্পী ও অন্যান্য অভিজাত ব্যক্তিবর্গ যোগ দেন। ট্রাম্প সম্মেলনে যোগ দেয়ার পরিবর্তে তা বাতিল করার জন্য কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাটদের দায়ী করেন। তিনি বলেন, তারা সরকারের অচলাবস্থা সমাধানে সচেষ্ট নয়। সরকারের অচলাবস্থাটি ঝুলে আছে ট্রাম্পের দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্তজুড়ে দেয়াল নির্মাণের জন্য ৫৭০ কোটি মার্কিন ডলার তহবিলে। যা দিতে ডেমোক্র্যাটরা অস্বীকৃতি জানিয়েছে। তারা বলেছে, জনগণের দেয়া করের কোন অর্থ দেয়া হবে না ট্রাম্পের উচ্চাভিলাষী দেয়াল নির্মাণের জন্য। যদিও এটি অস্পষ্ট যে, কখন সরকারের অচলাবস্থার অবসান হবে। মার্কিন সরকারের আংশিক অচলাবস্থার এখন ২০দিন অতিবাহিত হয়ে গেছে। ২২ থেকে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত বৈশ্বিক অর্থনৈতিক ফোরামের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারাভিযানে ট্রাম্পের দীর্ঘ প্রতিশ্রুতির একটি হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করা। যার তহবিল বরাদ্দ করা নিয়ে ট্রাম্প ও কংগ্রেসে ডেমোক্র্যাট সদস্যদের সঙ্গে লড়াই চলছে। যে জন্য সরকারের তহবিল বরাদ্দ করা হলেও ট্রাম্প তাতে স্বাক্ষর করেননি। টুইটারে ট্রাম্প লিখেছেন, সীমান্ত নিরাপত্তা ও আমাদের দেশের নিরাপদ থাকার বৃহৎ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি নিয়ে ডেমোক্র্যাটদের একগুঁয়েমির কারণে আমি সম্মানের সঙ্গে আমার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সুইজারল্যান্ডের ডাভোসে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ) সম্মেলন উপলক্ষে সফর বাতিল করেছি। আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে ডব্লিউইএফকে শুভ কামনা। বৃহস্পতিবার হোয়াইট হাউসে ট্রাম্প সাংবাদিকদের জানান যে, তিনি ফোরামের বৈঠকে বক্তব্য রাখার পরিকল্পনা করেছিলেন। তবে যদি অচলাবস্থা চলতে থাকে তাহলে আমি তাতে যোগ দেব না। সফর বাতিল করায় ট্রাম্প এখন বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে অর্থনৈতিক বিষয় নিয়ে বৈঠক করার সুযোগ হাতছাড়া করলেন। এই সম্মেলনের মাধ্যমে তিনি বাণিজ্যিক বিষয়ে কথা বলতে পারতেন।

অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মানুচিন সাংবাদিকদের জানান, তিনি হোয়াইট হাউসের সঙ্গে কথা বলেছেন কখন তিনি সুইজারল্যান্ড সফর করবেন সে বিষয়ে। আইন প্রণেতাদের সঙ্গে এক ব্রিফিং শেষে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, আমার অনুমান যদি এটি অব্যাহত থাকে তাহলে আমরা অনেক পেছনে পড়ে যাব। ট্রাম্প প্রশাসন ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন, চীন ও অপর দেশগুলোর সঙ্গে বাণিজ্যিক আলোচনায় যুক্ত রয়েছে। চীন ও যুক্তরাষ্ট্র ইতোমধ্যে বাণিজ্য চুক্তির লক্ষ্যে আলোচনায় ৯০দিনের জন্য শুল্ক বাস্তবায়নের পথ থেকে সরে গেছেন।