২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

না’গঞ্জে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৬

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ আড়াইহাজারে সালিশী বৈঠকে কথা কাটাকাটির জেরে শুক্রবার সকালে তোফাজ্জল ও লোকমান মেম্বার গ্রুপের সঙ্গে ইউপি সদস্য মোসলেম গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় চম্পকনগর এলাকার শতাধিক বাড়িঘর ভাংচুর করার পাশাপাশি নগদ টাকা-পয়সা ও মূল্যবান জিসিনপত্র লুটপাট করা হয়। এতে নারীসহ কমপক্ষে ছয়জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন জসিমউদ্দিন, সিহাব, ইয়ামিন, শিরিনা, মরিয়ম ও শাকিলা আক্তার। তাদের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, দু’দিন আগে স্থানীয় কবি নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সিহাব ও একই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী রাজনের মধ্যে ফুটবল খেলা নিয়ে ঝগড়া হয়। এ ঘটনায় জড়িত শিক্ষার্থীরা ইউপি সদস্য মোসলেম ও ইউপি সদস্য লোকমানের এলাকার বাসিন্দা। বিষয়টি মীমাংসা করতে ইউপি সদস্য মোসলেম ও গ্রাম্য মাতব্বর রব মিয়া শুক্রবার সকাল ১০টায় চম্পকনগর বাজারে সালিশী বৈঠক বসায়। বৈঠকে স্থানীয় কাকড়াইল মোড়া, বাহেরচর ও তেঁতুইতলা এলাকার পক্ষ হয়ে তোফাজ্জল, লোকমান মেম্বার ও রহিম অংশ নেয়। বৈঠকে উভয়ের মধ্যে বাগবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। পরে চম্পকনগর গ্রামের একটি পক্ষ বিভিন্ন বসত বাড়িতে একের পর এক হামলা চালাতে থাকে। বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে নগদ টাকা-পয়সা ও মূল্যবান জিনিসপত্র লুটপাট করা হয়। ক্ষতিগ্রস্তরা জানায়, চম্পকনগর এলাকার মোসলেম, কবির, নসল, মোমেন, ডাক্তার সিরাজুল, সুদল, জাহাঙ্গীর, সোহেল, মোতালিব, সোহরাব, ছাত্তার, মঞ্জুর, হালিম, মালেক, আউয়াল, আমজাদ, নাসির, ইলিয়াছ, সুমন, আবদুল, ইছু ও কবির ফকিরসহ আরও অনেকের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়। পরে আড়াইহাজার পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

খাগকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফুল হক বলেন, কবি নজরুল ইসলাম উচ্চ বিদ্যালয়ে খেলা নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি ঘটেছিল। এ ঘটনায় শুক্রবার চম্পকনগরে সালিশী বৈঠক বসে। এ সময় লোকমান মেম্বার ও তোফাজ্জল হোসেনের নেতৃত্বে চম্পকনগর এলাকার প্রায় একশ’ থেকে দেড়শ বসত বাড়িতে হামলা চালানো হয়।