২৪ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাংবাদিক মুক্তিযোদ্ধা রাজার চিকিৎসায় প্রধানমন্ত্রীর সাহায্য কামনা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ১১ জানুয়ারি ॥ জেলার গ্রামীণ সাংবাদিকতার পথিকৃৎ, সাহসী সাংবাদিক বীর মুক্তিযোদ্ধা আখতার হোসেন রাজা কিডনি, এ্যাজমা, উচ্চ রক্তচাপ ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত। এসব রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি এখন ঢাকার মিরপুর কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। বর্তমানে দুই/একদিন পর পর তাঁর কিডনি ডায়ালাইসিস করাতে হচ্ছে। এতে প্রতি ডায়ালাইসিসের জন্য প্রায় ২০ হাজার টাকার প্রয়োজন হচ্ছে। তাঁর পরিবারের পক্ষে এত টাকা ব্যয় করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ছে বলে তাঁর পারিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। তাই প্রতিভাবান গ্রামীণ সাংবাদিকতার পথিকৃৎ, মুক্তিযোদ্ধা এই সাংবাদিকের জীবন রক্ষায় চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

এই সাংবাদিক ঠাকুরগাঁও জেলার পীরগঞ্জ উপজেলার ভেলাতৈর ভদ্রপাড়া গ্রামে ১৯৪৮ সালে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা মরহুম আইয়ুব আলী সরকারের ৯ ছেলেমেয়ের মধ্যে চতুর্থ। ছাত্র জীবনে তিনি আইয়ুববিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। সে সময় ১৯৬২ সালে ছাত্র ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে ছাত্র রাজনীতিতে যোগ দেন রাজা।

ছাত্র রাজনীতির পাশাপাশি ১৯৬৭ সালে বগুড়া থেকে প্রকাশিত উত্তরবঙ্গ বুলেটিংয়ের প্রতিনিধি হিসেবে যোগদানের মধ্য দিয়ে সাংবাদিকতায় প্রবেশ করেন তিনি। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করাকালে বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)তে যোগদান করেন। সিপিবির জেলা সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ১৮ বছর সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বর্তমানে সিপিবির জেলা কমিটির সভাপতির পদে রয়েছেন।

তিনি ১৯৭৩ সালে দৈনিক সংবাদ পত্রিকার জেলা বার্তা পরিবেশক হিসেবে যোগদান করেন এবং এখন পর্যন্ত ওই পত্রিকায় একই পদে কর্মরত আছেন। সাংবাদিক আখতার হোসেন রাজা ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এ যোগদান করে এখন পর্যন্ত কর্মরত আছেন।

তিনি দীর্ঘ ১২ বছর যাবত রেডিও টুডের প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন। এ প্রতিষ্ঠানে গত এক বছর যাবত কোন বেতন বোনাস পাননি বলে জানান সাংবাদিক আখতার হোসেন রাজা। তিনি ১৯৭৮ সালে ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। পরবর্তীতে তিনি একাধিকবার সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতির পদে দায়িত্ব পালন করেন। প্রেসক্লাবের বাইরেও তিনি জেলা ও জেলার বাইরে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।