১৯ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রথম জয়ের খোঁজে খুলনা টাইটান্স

  • পরিবর্তিত সময়ে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে খেলা আজ, সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে ঢাকা-সিলেট মুখোমুখি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি২০ শুরুর পর দর্শক ঘাটতি সবারই নজরে পড়েছে। সে কারণে ম্যাচ শুরুর সময়ে বিপিএল গবর্নিং কাউন্সিল এনেছে পরিবর্তন। সেই পরিবর্তিত সময়ে আজ থেকেই কার্যকর হবে। নতুন সময় অনুসারে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে চিটাগং ভাইকিংসের মোকাবেলা করবে খুলনা টাইটান্স। টানা তিন পরাজয়ে বিপর্যস্ত খুলনা আজ জিততে চায় চিটাগংয়ের বিপক্ষে। আর চিটাগং চায় জয়ের ধারায় ফিরতে। সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে অপর ম্যাচে টানা তিন ম্যাচ জেতা দুর্বার ঢাকা ডায়নামাইটস নামবে সিলেট সিক্সার্সের বিপক্ষে। উভয় ম্যাচ মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে।

টানা তিন ম্যাচ জিতে গত আসরের রানার্সআপ ঢাকা রীতিমতো উড়ছে। কারণ, চলতি বিপিএলে তারাই ছিল একমাত্র অপরাজেয় দল। কিন্তু শুক্রবার গ্যালারি ঠাসা মিরপুরে তাদের প্রথম পরাজয়ের স্বাদ দিতে পারেনি গতবারের চ্যাম্পিয়ন রংপুর রাইডার্স। শক্তির লড়াইয়ে নিজেদের সেরা প্রমাণ করেছে ঢাকা। রানের খেলা টি২০, কিন্তু এবার বিপিএলে কোন একটি দল রান করতে পারলেও একই ম্যাচে প্রতিপক্ষকে ধসে পড়তে দেখা গেছে। শুক্রবার চলতি আসরের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও বড় ম্যাচ ঢাকা-রংপুর লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো সব স্বাদই পাওয়া গেছে। উভয় দল রান যেমন করেছে তেমনি সরকারী ছুটির দিন হওয়াতে দর্শকদেরও ছিল ব্যাপক উপস্থিতি। আর ভরপুর গ্যালারি থাকলে ক্রিকেটাররাও উজ্জীবিত হয়ে খেলতে পারেন। সে কারণেই বিপিএলের ম্যাচ শুরুর সময়ে আনা হয়েছে পরিবর্তন, যাতে করে দর্শকরা উপস্থিত হতে পারেন বেশি। শুক্রবার ব্যতীত অন্য দিনগুলোয় প্রথম ম্যাচ দুপুর সাড়ে ১২টায় এবং দ্বিতীয় ম্যাচ সন্ধ্যা ৫টা ২০ মিনিটে শুরু হয়েছে। আজ ঢাকা-সিলেট লড়াই শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে। আগের দিন প্রথম পরাজয় দেখার পর সেই ব্যথা ভোলার আগেই আজ ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই ঢাকার। এখন পর্যন্ত ব্যাটিং পারফর্মেন্সে অন্য দলগুলোর চেয়ে এগিয়ে তারা। সব ম্যাচেই বড় সংগ্রহ পেয়েছে। বোলিংয়েও নিজেদের বড় শক্তির প্রমাণ দেখা গেছে। আজ সাকিব আল হাসানকে নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষেত্রে কৌশলের লড়াই করতে হবে অস্ট্রেলিয়ার মারকুটে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের সঙ্গে।

প্রথম ম্যাচে সিলেট হারলেও ঠিকই ওয়ার্নারের দারুণ অর্ধশতকে দ্বিতীয় ম্যাচ জয় তুলে নিয়েছে। আক্রমণাত্মক ওপেনার লিটন দাস এখন পর্যন্ত নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি, তবে তরুণ আফিফ হোসেন ধ্রুব নিজেকে প্রমাণ করেছেন দারুণ ব্যাটিংয়ে। নিকোলাস পুরানও দারুণ ব্যাট করছেন। বোলিংয়ে নিয়মিত ভাল করছেন পেসার তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ ইরফান, সন্দ্বীপ লামিচানে ও অলক কাপালি। এর সঙ্গে সাব্বির রহমান, নাসির হোসেনরা জ্বলে উঠতে পারলে যেকোন প্রতিপক্ষকে হারানোর সামর্থ্য আছে সিলেটের। এবার তারা জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার লড়াইয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে তারা। দিনের প্রথম ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংস লড়বে খুলনার বিপক্ষে। টানা ৩ ম্যাচ হেরে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল খুলনা চলতি আসরে আছে সবচেয়ে বাজে অবস্থায়। কাগজে-কলমে দুর্বলতম দল গড়া খুলনা মাঠের প্রতিযোগিতায়ও অন্যদের চেয়ে নিজেদের বাজে দল হিসেবে প্রমাণ করেছে। রংপুরের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে কিছুটা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও পরের দুই ম্যাচে তারা ঢাকা ও রাজশাহীর কাছে বাজেভাবে হেরেছে। এবার চিটাগংয়ের বিপক্ষে শক্তি পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবে তারা। এবার উদ্বোধনী ম্যাচেই চিটাগং গত আসরের চ্যাম্পিয়ন রংপুরকে হারিয়ে চমক দেখিয়েছিল। তবে পরের ম্যাচেই সিলেটের কাছে চরম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৫ রানে হেরে যায় তারা। এবার ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াই তাদেরও। মুশফিকুর রহীমের নেতৃত্বে দলটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় মুখ মোহাম্মদ আশরাফুল। ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত থাকায় ৫ বছর নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে এবার বিপিএলে ফিরেছেন তিনি। তবে গত দুই ম্যাচে বড় স্কোর করতে পারেননি। আজ তার দিকে তাকিয়ে থাকবে ক্রিকেট ভক্ত-সমর্থকরা। তবে দুই বিদেশী মোহাম্মদ শাহজাদ ব্যাট হাতে এবং রবার্ট ফ্রাইলিঙ্ক ব্যাটে-বলে দারুণ ফর্মে আছেন। ক্যামেরন ডেলপোর্টও ভাল ব্যাট করছেন। এবার তাদের নিয়েই সম্মিলিত প্রচেষ্টায় জয়ে ফিরতে চায় চিটাগং। এ বিষয়ে দলের তরুণ ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী বলেন, ‘অবশ্যই প্রত্যেকটি ম্যাচ এখানে চ্যালেঞ্জিং। খুলনা টাইটান্স তিনটি ম্যাচ হেরেছে, কিন্তু অবশ্যই ওদের দল অনেক ভাল। সুতরাং ওদের হালকাভাবে নেয়ার কোন সুযোগ নেই আমাদের। আমরা অবশ্যই চেষ্টা করব শতভাগ দিয়ে খেলে যত ভালভাবে সম্ভব জেতার।