২৪ জানুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডিমলায় তিস্তার ভাঙ্গনে ফসলি জমি বিলীন

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ আশ্চর্যজনক হলেও সত্য যে শুস্ক মৌসুমে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার তিস্তা নদীর চরের আবাদি জমিসহ বিভিন্ন এলাকা নদী ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। শুক্রবার এলাকাবাসী অভিযোগ করে জানায় নদী ও নদীর ধারে অবৈধভাবে সেফ নৌকায় ও বোমা মেশিন দিয়ে পাথর উত্তোলনের কারণে এই ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। ফলে জমির মালিকদের ফসলসহ জমি নদীর গর্ভে বিলীন হচ্ছে।

ফলে নদী ভাঙ্গনে ব্যাপক ক্ষতি হলেও ডিমলার ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা এলাকা পরিদর্শন বা নদী ভাঙ্গন রোধে কোন ব্যবস্থা করেনি বলে অভিযোগ উঠেছে। ফলে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে নদী তীরবর্তী মানুষেরা।

এলাকাবাসীর অভিযোগ উপজেলার টেপাখড়িবাড়ি ও খালিশাচাপানী এলাকায় এই ভাঙ্গন সব থেকে বেশি। ওই দুই এলাকায় সব থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন করা হচ্ছে। ফলে এর প্রভাব নদীর ডান ও বাম তীরে এসে পড়েছে। এতে ভুট্টা, গম ও মিষ্টি কুমড়া আবাদের জমিগুলো নদী ভঙ্গে বিলীন হচ্ছে।

এলাকার নদী বেষ্টিত বসবাসকৃত সাধারণ মানুষজন জানায় আমরা প্রভাবশালীদের ভয়ে ও হুমকির কারণে কোন প্রতিবাদ করতে পারি না। অথচ তারা নিজেদের ফায়দা লুটে যাচ্ছে আর আমাদের ফসলি জমির ক্ষতি করছে।

এদিকে ডিমলা এলাকায় অবৈধভাবে বোমা মেশিন বসিয়ে মাটির তলদেশ হতে পাথর উত্তোলনে প্রশাসনের পক্ষে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে শাহিন. মোজাম ও মাজেদসহ আটজনের বোমা মেশিন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

এই মাত্রা পাওয়া