২২ মার্চ ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাইজিরিয়ায় ট্যাঙ্কার বিস্ফোরণে ১২ জন নিহত

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ নাইজিরিয়ায় উল্টে পড়া একটি ট্যাঙ্কার থেকে চুইয়ে পড়া তেল সংগ্রহের সময় তা বিস্ফোরিত হয়েছে। বিস্ফোরণের ফলে তেল সংগ্রহ করতে ব্যস্ত থাকা মানুষের মধ্যে অন্তত ১২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও অন্তত ২২ জন। শনিবার নাইজিরিয়ার পুলিশের মুখপাত্র ইরেনে উগবো মার্কিন বার্তা সংস্থা এ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে বলেছেন, আমরা ১২টি দগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করেছি। আর ২২ জন মারাত্মক দগ্ধ ব্যক্তিকে হাসপাতালে পাঠিয়েছি। তবে স্থানীয়রা বলছেন নিহতের সংখ্যা ৬০ জন হতে পারে। -খবর এপির।

বিগত কয়েক বছরে একই ধরনের ঘটনায় নাইজিরিয়ায় কয়েক শ’ মানুষ নিহত হয়েছে। আফ্রিকার সবচেয়ে বড় তেল উৎপাদনকারী দেশ নাইজিরিয়া। তবুও এর নাগরিকেরা পাইপ লাইনের ছিদ্র বা তেলবাহী ট্রাক থেকে চুইয়ে পড়া তেল সংগ্রহ করতে গিয়ে জীবন বিপন্ন করতে দ্বিধা করে না। প্রায় এক বছর আগে একই এলাকায় দুর্ঘটনা কবলিত আরেকটি ট্যাঙ্কার থেকে তেল সংগ্রহের সময় ৩০ জনেরও বেশি দগ্ধ হয়ে মারা যায়। ১৯৯৮ সালে দেশটির এই ধরনের সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনা ঘটে। জেসে শহরের একটি পাইপলাইন থেকে তেল সংগ্রহ করতে গিয়ে ওই সময় প্রায় এক হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল। নাইজিরিয়ার পুলিশের মুখপাত্র ইরেনে উগবো বলেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশের ওদুকপানি এলাকায় এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। রিচার্ড জনসন নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী এপিকে বলেন, ‘পুলিশ শুধু কয়েকটি মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। আর অনেকেই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে’। তিনি জানান, বিস্ফোরণের সময়ে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ৬০ জন তেল সংগ্রহ করছিলেন। জনসন আরও বলেন, ‘মনে হয় না সেখানে থাকা কেউ বেঁচে আছে। কারণ সেখানে প্রচুর তেল ছিল।’ তিনি জানান, মানুষের সংগ্রহ করা পাত্র থেকে তেল টেনে নেয়ার জন্য ঘটনাস্থলে একটি ইলেকট্রিক জেনারেটর আনা হলে তা থেকে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তবে বিস্ফোরণের কারণ সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে কিছুই জানায়নি।