২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুসলিম দেশগুলোর সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান চান প্রধানমন্ত্রী

মুসলিম দেশগুলোর সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান চান প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক ॥ মুসলিম দেশগুলোর ঐক্যের প্রতি জোর দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কোনো সমস্যা থাকলে মুসলিম দেশগুলোকে তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা উচিত।

তিনি বলেন, ‘মুসলিম উম্মাহর একসাথে থাকা উচিত....তাদের মাঝে যদি কোনো সমস্যা থাকে তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান হতে পারে।’

নবনিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ রেজা নাফর বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের এ বিষয়ে অবহিত করেন।

মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে কোনো সংঘাত থাকলে সাধারণ মানুষ তার ভুক্তভোগী হয় বলে মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা জানান, সরকার বাংলাদেশে দারিদ্র্যের হার ২১ শতাংশে নামিয়ে এনেছে এবং তাদের লক্ষ্য নিকট ভবিষ্যতে তা আরও ৪-৫ শতাংশ কমিয়ে আনা।

তিনি বলেন, তার সরকারের উন্নয়ন নীতিমালা গ্রামীণ স্তর কেন্দ্রিক।

দেশে বিদ্যমান ধর্মীয় সম্প্রতি নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষ সব ধর্মীয় উৎসবে অংশ নেয় বলে এখানে সম্প্রতি বজায় রয়েছে।

ইরানি জনগণকে সাহসী আখ্যা দিয়ে তিনি দেশটির অর্থনৈতিক অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন।

প্রধানমন্ত্রী নতুন ইরানি রাষ্ট্রদূতকে বাংলাদেশে স্বাগত জানান এবং তার মেয়াদকালে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এছাড়া শেখ হাসিনা রাষ্ট্রদূতের মাধ্যমে ইরানি প্রেসিডেন্টকে শুভেচ্ছা জানান এবং ১৯৯৭ ও ২০১২ সালে তার ইরান সফরের কথা স্মরণ করেন।

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ রেজা নাফর সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ভূমিধস বিজয়ে ভূয়সী অভিনন্দন জানান এবং শেখ হাসিনাকে বাংলাদেশের একজন বিজ্ঞ ও বিচক্ষণ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বর্ণনা করেন। ইরানের জনগণ তাকে খুবই পছন্দ করে বলে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত।

রেজা নাফর বাংলাদেশের আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে থাকা সুষম নীতি এবং দেশ স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশের তালিকাভুক্ত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করেন।

বাংলাদেশ ও ইরানের মধ্যে থাকা ১৩৫ মিলিয়ন ডলারের বাণিজ্যকে আরও বাড়ানোর ওপর জোর দিয়ে তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে এটা সন্তোষজনক নয়।’

পশ্চিমা দেশগুলোর নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও ইরান সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করেন রাষ্ট্রদূত।

ইরান সরকার তাদের অঞ্চলে উত্তেজনা কমাতে কাজ করছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা যুদ্ধবাজ দেশ নই...আমরা উপসাগরীয় দেশগুলোর সাথে সর্বোত্তম সম্পর্ক রাখতে চাই।’

আঞ্চলিক উত্তেজনা কমাতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী কোনো উদ্যোগ নিলে ইরান তাকে স্বাগত জানাবে বলে জানান রেজা নাফর।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো. নজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ