২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আদালতের আদেশে ব্যবসায়ী বাদল ও তার স্ত্রীর সম্পদ জব্দ

বিডিনিউজ ॥ আদালতের আদেশে ব্যবসায়ী লুৎফর রহমান বাদল এবং তার স্ত্রী সোমা আলম রহমানের নামে থাকা কয়েকশ কোটি টাকার সম্পদ জব্দ করা হয়েছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য রবিবার বলেন, বাদল ও তার স্ত্রীর সব স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি জব্দ করতে গত সেপ্টেম্বরে ঢাকা মহানগর বিশেষ জজ আদালত, নারায়ণগঞ্জ জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালত ও নরসিংদী জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ আদালতে আবেদন করলে সম্প্রতি এসব আদালত থেকে জব্দের বিষয়ে নির্দেশনা আসে।

আদালত থেকে তাদের সব সম্পদ জব্দ করতে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক, সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়। এরপর তাদের সব সম্পদ জব্দ করা হয় বলে জানান দুদকের উপ-পরিচালক মোশারফ হোসেইন মৃধা, যিনি এই দম্পতির বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। জব্দ করা বাদল-সোমার সম্পদের বিবরণও দিয়েছেন তিনি। এসব সম্পদের মধ্যে রয়েছে ঢাকার বনানীর পুরাতন ডিওএইচএসের ৫ নম্বর সড়কের ৬৮ নম্বর বাড়ি, বাড়িধারা মডেল টাউনের তিন তলা একটি বাড়ি, ধানমন্ডির রয়েল প্লাজা, বনানীর গলফ হাইটস, গুলশানের ভাটারার বাড়ি এবং কাকরাইল ও রমনার জমি। এছাড়া বাদলের সাউথ ইস্ট ব্যাংকের একক ও যৌথ হিসাব, ওয়েসিস ইঞ্জিনিয়ারিং এ্যান্ড কনস্ট্রাকশন লিমিটেডে ৫০ হাজার টাকার শেয়ার, সিনক্লিয়ার ফার্মাসিটিক্যালের ১ লাখ টাকার শেয়ার, লতিফ সিকিউরিটিজস লিমিটেডের ১২ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার, বিসি কর্পোরেশনের ৫০ হাজার টাকার শেয়ার, ডায়াপার লিমিটেডের ৬০ লাখ টাকার শেয়ার, বেঙ্গল মিডিয়া করপোরেশনের ১ কোটি টাকার শেয়ার, আল মানার হাসপাতালের ৬৩ লাখ ২৫ হাজার টাকার শেয়ার, ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের ৪১ লাখ ৮১ টাকার শেয়ার এবং অন্যান্য সম্পদ জব্দের তালিকায় রয়েছে। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদীসহ বিভিন্ন জায়গায় এ দম্পতির নামে থাকা কয়েক কোটি টাকার স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি জব্দ করা হয়েছে বলে তদন্ত কর্মকর্তা জানিয়েছেন। বাংলাদেশের আর্থিক খাতে আলোচিত নাম লুৎফর রহমান বাদল। বলা হয়, পুঁজিবাজার থেকেই বিত্তশালী হয়ে ওঠেন তিনি। পুঁজিবাজারে কারসাজির ঘটনায় বিভিন্ন সময়ে তার নাম এসেছে। বাদল ক্রীড়া সংগঠক হিসেবেও পরিচিত।