১৯ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেসি-দেম্বেলের নৈপুণ্যে বার্সার জয়

মেসি-দেম্বেলের নৈপুণ্যে বার্সার জয়

অনলাইন ডেস্ক ॥ উসমান দেম্বেলের নৈপুণ্যে এগিয়ে যাওয়া বার্সেলোনা দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে গোল খেয়ে বসে। তবে বদলি হিসেবে নেমে পার্থক্য গড়ে দেন লিওনেল মেসি। লেগানেসের বিপক্ষে দারুণ এক জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা।

কাম্প নউয়ে রবিবার রাতে লিগ ম্যাচটি ৩-১ গোলে জেতে বার্সেলোনা। দলের তৃতীয় গোলটি করেন মেসি। লুইস সুয়ারেসের গোলেও বড় ভূমিকা ছিল পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের।

ম্যাচের শুরু থেকে দেম্বেলের পারফরম্যান্স ছিল নজরকাড়া। প্রথম ১৫ মিনিটে বেশ কয়েকবার গতিতে প্রতিপক্ষের রক্ষণে ভীতি ছড়ান ফরাসি এই ফরোয়ার্ড। ৩২তম মিনিটে তার নৈপুণ্যেই এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

সতীর্থের পাস ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বাঁ দিকে জর্দি আলবাকে বল বাড়িয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন দেম্বেলে। আর ফিরতি পাস ফাঁকায় পেয়ে ডান পায়ের শটে বল ঠিকানায় পাঠান বিশ্বকাপ জয়ী এই ফুটবলার। বল পোস্টে লেগে ভিতরে ঢোকে। চলতি লিগে এটা তার অষ্টম গোল।

বিরতির আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ নষ্ট করেন ফিলিপে কৌতিনিয়ো। দেম্বেলেকে বল বাড়িয়ে ডি-বক্সে ছুটে যাওয়া ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিরতি পাস ফাঁকায় পেয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন।

দ্বিতীয়ার্ধেও একইভাবে বল দখলে রেখে একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে শিরোপাধারীরা। তবে খেলার ধারার বিপরীতে পাল্টা আক্রমণে ৫৭তম মিনিটে উল্টো গোল পেয়ে যায় অতিথিরা। সতীর্থের পাস ছোট ডি-বক্সে পেয়ে টোকায় গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেনকে পরাস্ত করেন মার্টিন ব্রেথওয়েট।

৬৪তম মিনিটে মিডফিল্ডার কার্লেস আলেনাকে বসিয়ে মেসিকে নামান কোচ। অধিনায়ক নামার দুই মিনিট পর চোট পেয়ে মাঠ ছাড়েন দেম্বেলে।

মাঠে নামার কিছুক্ষণ পরেই দলকে আবারও এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন মেসি। ৭১তম মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া তার বুলেট শট দুর্দান্তভাবে ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক; কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি। ছুটে গিয়ে আলগা বল টোকা দিয়ে জালে পাঠান সুয়ারেস। এই নিয়ে চলতি লিগে উরুগুয়ের স্ট্রাইকারের গোল হলো ১৫টি।

যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে জয় নিশ্চিত করেন মেসি। স্প্যানিশ ডিফেন্ডার আলবার সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সের মধ্যে থেকে ডান পায়ের শটে চলতি লিগে নিজের ১৮তম গোলটি করেন আর্জেন্টাইন তারকা।

২০ ম্যাচে ১৪ জয় ও চার ড্রয়ে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার পয়েন্ট হলো ৪৬।

নির্বাচিত সংবাদ