২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ইসলামে বই পড়ার তাকিদ

  • প্রসঙ্গ ইসলাম

অধ্যাপক হাসান আবদুল কাইয়ূম ॥ আল্লাহ্ তায়ালার প্রত্যাদেশকে বলে ওহী। এই ওহী থেকে বহি শব্দের উৎপত্তি। একটা ছড়ায় আছে : ওহী থেকে বহি। তার থেকে বই/ বই পড়ে এসো আমরা মানুষ হই।

আল্লাহ্্ প্রত্যাদেশের মাধ্যমে নবী-রসূলগণের কাছে জ্ঞান প্রদান করেছেন, আল্লাহ্্ জ্ঞান প্রদানকারী আর নবী-রসূলগণ জ্ঞান বিতরণকারী পৃথিবীতে নবী-রসূলগণ আল্লাহ্্ প্রদত্ত হিদায়াত প্রচার করেছেন। আল্লাহ্্ যুগে যুগে নবী-রসূলগণের নিকট নাযিল করেছেন কিতাব এবং সহিফা। কিতাবের সংখ্যা ৪ খানা এবং সহিফার সংখ্যা ১০০টি। কিতাব হচ্ছে পূর্ণাঙ্গ গ্রন্থ এবং সহিফা কয়েকখানি পৃষ্ঠা সংবলিত পুস্তিকা।

সহিফার সংখ্যা ১০০ বলা হলেও আসলে এর অর্থ অসংখ্য। চারখানা কিতাব বা আল্লাহ্ প্রদত্ত হচ্ছে- যবুর, তাওরাত, ইঞ্জিল এবং আল কুরআনুল করীম। ৬১০ খ্রিস্টাব্দে ২৭ রমাদানা রাতে কুরআনুল করীম নাজিলের সূত্রপাত হয় মক্কা শরীফের হিরা গুহায়। আল্লাহ্র ফেরেশতা হযরত জিবরাইল (আ)-এর নিকট আল্লাহ্ তায়ালা লৌহ মাহফুজ থেকে গোটা কুরআন মাজীদ দিয়ে পৃথিবীতে নাযিল করার জন্য প্রেরণ করেন। তিনি সোনার পাতের ওপর উৎকীর্ণ করা গোটা কুরআন মাজীদ বহন করে হিরা গুহায় অবতীর্ণ হন এবং সেখানে অবস্থানরত হযরত মুহম্মদ (সা)-এর সামনে তুলে ধরে বলেন, আপনি পড়ুন। তিনি বলেন আমি তো পড়তে পারি না এইভাবে তিনবার কথোপকথনের পর হযরত জিব্রাইল (আ), হযরত মুহম্মদ (সা)-কে বুকে টেনে নিয়ে আলিঙ্গন করেন ফলে জ্ঞান রাজ্যের সকল দুয়ার তাঁর সম্মুখে উন্মোচিত হয়ে যায়। তিনি অনায়াসে সূরা আলাকের পাঁচখানি আয়াতে কারীমা পাঠ করেন। আল্লাহ্্ জাল্লা শানুহু ইরশাদ করেন : পড়ো তোমার রবের নামে। যিনি সৃষ্টি করেছেন, সৃষ্টি করেছেন মানুষকে আলাক থেকে। পড়ো, আর তোমার রব মহামহিমান্বিত। যিনি কলমের সাহায্যে শিক্ষা দিয়েছেন, শিক্ষা দিয়েছেন যা সে জানত না। (সূরা আলাক : আয়াত ১-৫)। এইটুকু নাযিল করে ফেরেশতা জিব্রাইল আলায়হিস্্ সালাম কুরআন মাজীদ আল্লাহ্্র নির্দেশে প্রথম আসমানে বায়তুল ইজ্জতে সংরক্ষণ করলেন। সেখানে থেকে প্রায় ২৩ বছর ধরে একটু একটু করে কুরআন নাযিল হয়। অধিকাংশের মতে ৬৩২ খ্রিস্টাব্দের ৯ জিলহজ বিদায় হজের খুতবা প্রদান শেষে কুরআন মাজীদের নাযিল প্রক্রিয়ার সমাপ্তি ঘটে। আল্লাহ্্ তায়ালা ইরশাদ করেন : আজ তোমাদের জন্য তোমাদের দীনকে পূর্ণাঙ্গ করলাম। আমার নিয়ামত তোমাদের প্রতি সম্পন্ন করলাম এবং তোমদের দীন ইসলামকে সানন্দ অনুমোদন দান করলাম। (সূরা মায়িদা : আয়াত ৩)।

৬১০ খ্রিস্টাব্দে প্রথম ওহী নাযিল হওয়ার তিন বছর সূরা মুযযাম্মিল নাযিল হয়। তাতে আল্লাহ্্ জাল্লা শানুহু ইরশাদ করেন : আর কুরআন আবৃত্তি কর ধীরে ধীরে ও সুস্পষ্টভাবে। (আয়াত ৪)। ইসলামে বই পড়ার গুরুত্ব অপরিসীম। ইসলাম বই পড়ার জোর তাকিদ প্রদান করেছে।

লেখক : পীর সাহেব, দ্বারিয়াপুর শরীফ