২১ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মি. রয় তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরের সময় একজন ইমামের উপস্থিতি চেয়েছিলেন

মি. রয় তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরের সময় একজন ইমামের উপস্থিতি চেয়েছিলেন

অনলাইন ডেস্ক ॥ মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সময় ইমামকে উপস্থিত থাকার অনুমতি না দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের একজন মুসলমান বন্দির মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকর স্থগিত করেছে ফেডারেল আপিল আদালত। ১৯৯৫ সালে অ্যালাব্যামা রাজ্যে ১৫ বছরের এক কিশোরীকে হত্যার অভিযোগে ডোমিনিক রয়কে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়, যে সাজা বৃহস্পতিবার কার্যকর করার কথা ছিল। কিন্তু তার আইনজীবী বলছেন, মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার সময় একজন ইমামের উপস্থিত থাকার অনুরোধ নাকচ করে দিয়ে রাজ্য সরকার তার ধর্মীয় অধিকার ক্ষুণ্ণ করেছে।

এরপরে ফেডারেল আপিল আদালত ওই মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরে স্থগিতাদেশ দেন। তবে ওই আদেশের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টে আপিল করবে রাজ্য সরকার। প্রাণঘাতী ইনজেকশনের মাধ্যমে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর স্থগিত করে তিন বিচারকের প্যানেল বলেছেন, '' রাজ্যের বিরুদ্ধে মি. রয়ের শক্তিশালী দাবি রয়েছে।''

''এখানে সাংবিধানিক সমস্যাটি হলো যে, কোন খৃষ্টান বন্দির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের সময় রাজ্যটি সেখানে নিয়মিতভাবে খৃষ্টান যাজককে উপস্থিত থাকার অনুমতি দেয়। কিন্তু একজন মুসলিম এবং অন্য ধর্মের বন্দিদের ক্ষেত্রে একই সুবিধা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।''

অ্যালাব্যামা সংশোধনাগার বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, খৃষ্টান যাজক ক্রিকম সামারস ১৯৯৭ সাল থেকে প্রত্যেক খৃষ্টান বন্দির মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরের সময় উপস্থিত থাকেন। আদালতের কাছে মি. রয়ের আবেদন ছিল যে, তার মৃত্যুদণ্ডাদেশ কার্যকরের সময় যেন খৃষ্টান যাজক উপস্থিত না থেকে একজন ইমাম উপস্থিত থাকেন। ''যাতে তিনি নিজের ধর্মের একজন ইমামের কাছ থেকে ধর্মীয় নির্দেশনা এবং স্বস্তি অনুভব করতে পারেন।''

বিচারকরা লিখেছেন, ২০০৬ সাল থেকে ডোমিনিক রয় একজন একনিষ্ঠ মুসলিম, এমনটি সংশোধনাগারেরও তার ধর্মীয় বিশ্বাসের গভীরতা নিয়ে সন্দেহ নেই। পাশাপাশি তার ইমাম ইউসুফ মাইসোনেট ২০১৫ সাল থেকে ওই কারাগারের বন্দিদের ধর্মীয় সেবা দিয়ে আসছেন।

তবে কারাগার কর্তৃপক্ষ বলছে, তারা যাজকের পরিবর্তে বাইরের একজন ব্যক্তিকে তারা মৃত্যুদণ্ড কার্যকর কক্ষে থাকার অনুমতি দেবেন না। তবে প্রত্যক্ষদর্শীদের কক্ষে তিনি উপস্থিত থাকতে পারেন।এর আগে ডিসট্রিক্ট আদালত আদেশ দিয়েছিল যে, এরকম একটি আইনি ইস্যু তোলার জন্য তিনি অনেক বেশি সময় নিয়েছেন, যেহেতু তিনি শেষ মুহূর্তে এরকম একটি ধর্মীয় বিষয় উত্থাপন করেছেন।

ডোমেনিক রয় প্রায় বিশ বছর ধরে কারাগারে রয়েছেন বলে নিউইয়র্ক টাইমস সংবাদ প্রকাশ করেছে।

সূত্র : বিবিসি বাংলা