২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুরান ঢাকায় তিনটি আধুনিক কমিউনিটি সেন্টার হচ্ছে

মশিউর রহমান খান ॥ আধুনিক সুবিধা সম্পন্ন ও পরিবেশবান্ধব সবুজে ঢাকা নতুন তিনটি কমিউনিটি সেন্টার কাম মাল্টিপারপাস ভবন নির্মাণ করছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি)। এসব ভবনে প্রবেশের পথেই রাখা হবে নানা সবুজের সমারোহ। তিনটি ভবনই রাজধানীর পুরান ঢাকার নাগরিকদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে লালবাগ, নাজিরাবাজার বা কাজী আলাউদ্দীন রোড ও হাজারীবাগের এসব ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। নতুন এসব কমিউনিটি সেন্টারের সঙ্গে এলাকার বাসিন্দাদের সর্বক্ষণিক যোগাযোগ বাড়াতে ও এসব ভবনকে সম্পূর্ণ কার্যকর করতে সংস্থাটির পক্ষ থেকে বিশেষ উদ্যোগও নেয়া হয়েছে। ডিএসসিসির পুরনো কমিউনিটি সেন্টারের জমিতেই প্রায় ২শ’ ৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এসব কমিউনিটি সেন্টার কাম মাল্টিপারপাস ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নগরবাসীর চাহিদার প্রেক্ষিতে নতুন করে তিনটি মাল্টিপারপাস ভবন এবং পুরনো দুটি কমিউনিটি সেন্টার সংস্কারের গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে একনেক সভায় প্রকল্প প্রস্তাব পাঠায় ডিএসসিসি। এর মধ্যে নতুন তিনটি মাল্টিপারপাস ভবন নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ২শ’ ৫২ কোটি টাকা। নতুন তিনটি মাল্টিপারপাস ভবন নির্মাণের পাশাপাশি সবুজবাগ থানার উত্তর দিকে অবস্থিত পুরনো বাসাবো কমিউনিটি সেন্টার ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের সূত্রাপুর কমিউনিটি সেন্টারটি সংস্কার করা হবে। দুই তলা বিশিষ্ট এই দুটি কমিউনিটি সেন্টার সংস্কারে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬ কোটি টাকা। প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, নতুন তিনটি মাল্টিপারপাস ভবনের মধ্যে ডিএসসিসির ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাজী আলাউদ্দিন রোডে বা নাজিরাবাজারে, ২২ নম্বর ওয়ার্ডের খলিল সরদার কমিউনিটি সেন্টার ও ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের শায়েস্তাখান কল্যাণ কেন্দ্র। যা বর্তমানে র‌্যাব-১০’র অফিস হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

এসব ভবনের প্রত্যেকটিতেই আধুনিক কমিউনিটি হল রুম, স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্র, কাউন্সিলরের কার্যালয়, পাঠাগার, নারী ও পুরুষের জন্য আলাদা শরীরচর্চা কেন্দ্র ও ইনডোর গেমস এবং ফুড কোডের বিশেষ ব্যবস্থা ও পর্যাপ্ত গাড়ি পার্কিংয়ের সুবিধা থাকবে। এসব মাল্টিপারপাস সেন্টারে শরীরচর্চার জন্য নারী ও পুরুষের পৃথক পৃথক ব্যায়ামাগার (জিম) নির্মাণ করা হবে। এসব জিমে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সুবিধা সম্পন্ন ব্যায়ামের যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হবে। মূলত নাগরিকদের চাহিদার কথা বিবেচনা করে ও ডিএসসিসির রাজস্ব আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে অল্প জমিতে অধিক সেবা প্রদানের লক্ষ্যেই এক সময়ের শুধু কমিউনিটি সেন্টারের পরিবর্তে একই স্থানেই মাল্টিপারপাস সেন্টার হিসেবে গড়ে তোলা হবে।