১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কোচিং সেন্টারের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে অভিযান চলছে

গাফফার খান চৌধুরী ॥ প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকেই সারাদেশে চালু থাকা কোচিং সেন্টারের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। সোমবারও রাজধানীর যাত্রাবাড়ী, শনির আখড়া ও ধনিয়ার আটটি কোচিং সেন্টারে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব-১০ এর ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে দুটি কোচিং সেন্টার সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। আটটি কোচিং সেন্টারের মালিককে জরিমানা করা হয়েছে।

ধারাবাহিক অভিযানে ইতোমধ্যেই সারাদেশের অন্তত ৩৫ কোচিং সেন্টার সিলগালা করা হয়েছে। এসব কোচিং সেন্টার চালু রাখার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে অন্তত ৩৭ জনকে কারাদ- ও অর্থদ- করা হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকেই র‌্যাব-১০ এর একটি দল ঢাকার যাত্রাবাড়ী, শনির আখড়া ও ধলপুরে অভিযান চালায়। অভিযানকালে কোচিং সেন্টারগুলো খোলা ছিল। র‌্যাবের লিগ্যাল এ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জনকণ্ঠকে বলেন, অভিযানে আটটি কোচিং সেন্টারকে জেলজরিমানা করা হয়েছে। এর মধ্যে দুটি কোচিং সেন্টার সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

এগুলো হচ্ছে কদমতলীর প্রিভেইল কোচিং সেন্টার, যাত্রাবাড়ীর সমীকরণ কোচিং সেন্টার, দক্ষিণ ধনিয়ার চ্যালেঞ্জার কোচিং সেন্টার, জেনুইন কোচিং সেন্টার, বেস্ট কোচিং সেন্টার, শনির আখড়ার ফরম্যাট কমার্স কোচিং সেন্টার, ফরম্যাট একাডেমি কোচিং সেন্টার ও এমআর কোচিং সেন্টার।

এছাড়া যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল এ্যান্ড কলেজের গণিত ও পদার্থ বিদ্যার দুজন শিক্ষক মোশারফ হোসেন ও গোলাম মাওলার নিজ বাসভবনে কোচিং সেন্টার পরিচালনা করার অপরাধে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য ঢাকা জেলা শিক্ষা অফিসার বেনজির আহমেদকে অবহিতকরণ পূর্বক উক্ত প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

এই নিয়ে সারাদেশে অন্তত ৩৫টি কোচিং সেন্টারে অভিযান চালানো হয়েছে। এর মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে অন্তত ৩৭ জনকে। উচ্চ আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক এবং শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনির নির্দেশনা মোতাবেক এসএসসি পরীক্ষা চলমান থাকা পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত রাখার প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরবর্তীতে উচ্চ আদালত ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এরই প্রেক্ষিতে গত ২৭ জানুয়ারি প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে দেশের সকল কোচিং সেন্টার আগামী ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি। নির্দেশনায় বলা হয়, নির্দেশ অমান্য করে কোচিং সেন্টার চালু রাখা হলে ম্যাজিস্ট্রেট দিয়ে তা বন্ধ করে দেয়া হবে। পাশাপাশি জেলজরিমানা করা হবে। এমন ঘোষণার পর পূর্ব নির্ধারিত সময় মোতাবেক গত ২ ফেব্রুয়ারি থেকে সারাদেশে একযোগে এসএসসি পরীক্ষা চলছে।