২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাগর নদে বালু ও মাটি কাটার মোচ্ছব

নিজস্ব সংবাদদাতা, সান্তাহার, ১১ ফেব্রুয়ারি ॥ আদমদীঘি উপজেলার কুন্দগ্রাম ও চাঁপাপুর ইউনিয়নের ওপর দিয়ে প্রবাহিত নাগর নদ থেকে এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে বালু ও মাটি কেটে লুট করার মহোৎসব চলছে। এতে ওই এলাকার কয়েকটি গ্রামসহ ফসলি জমি ও ঘর বাড়ি হুমকির মুখে পড়েছে। ইতোমধ্যে বালু ও মাটি ধসে ২ শ্রমিক নিহতের ঘটনা ঘটলেও থামছে না সরকার দলীয় বালু দস্যুরা। জানা গেছে, উপজেলার কুন্দগ্রাম ও চাঁপাপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের কয়েক প্রভাবশালী ব্যক্তি প্রশাসনের সঙ্গে আঁতাত করে এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু ও মাটি কেটে নিয়ে বাণিজ্য করার মাধ্যমে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাচ্ছে। পক্ষান্তরে বর্ষা মৌসুমে বাঁধ ভেঙ্গে নদের দুই পাশের হাজার হাজার বিঘা জমির আমন ক্ষেত বন্যাকবলিত হয়ে আসছে। কয়েক বছর ধরে অবৈধভাবে মাটি ও বালু ব্যবসায়ীদের খপ্পড়ে পড়ে নদটির এখন করুণদশা। কুন্দগ্রাম ও চাঁপাপুর ইউনিয়ন এলাকার কুশাবাড়ি ব্রিজ সংলগ্ন, হরিয়ানমারা, ফুলবাগিচা, পালনকুড়ি ও বাঘাদহ অন্তত ১২ পয়েন্টে এভাবে মেশিন দিয়ে নাগর নদ থেকে বালু ও মাটি কেটে তুলে নেয়া হচ্ছে। ফলে প্রতি বর্ষা মৌসুমে পানির চাপে ভেঙ্গে যায় বাঁধ, ক্ষতি হয় হাজার হাজার বিঘা জমির আমন ধান। এ ব্যাপারে আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, যে এলাকা থেকে বালু ও মাটি কেটে উত্তোলন করা হয় সেই এলাকা প্রত্যন্ত দুর্গম এলাকা হওয়ায় পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই অপরাধীরা পালিয়ে যায়। তবে অচিরেই এদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নির্বাচিত সংবাদ