২১ এপ্রিল ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অষ্টম শ্রেণির পড়াশোনা

  • বিষয় ॥ কৃষি বিজ্ঞান;###;মোঃ মনোয়ারুল হক

বি.এস.এস,বি-এড

সিনিয়র শিক্ষক

কানকিরহাট বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়, সেনবাগ, নোয়াখালী।

মোবাইলঃ ০১৭১৮৮৬৩০৪৫

সুপ্রিয় শিক্ষার্থীরা, আন্তরিক প্রীতি ও শুভেচ্ছা রইল।

সৃজনশীল প্রশ্ন ॥ দ্বিতীয় অধ্যায়-কৃষি প্রযুক্তি

উদ্দীপকটি পড় এবং প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।

সালমান একজন আলু চাষী। দু-বছর ধরে কেবল আলুই চাষ করে যাচ্ছে। আশানুরুপ ফলনও পাচ্ছে না। ফলে সে কিছুটা আর্থিক টানাপোড়েনে পড়ে যায়। তার এ অবস্থা দেখে প্রতিবেশি কৃষক বন্ধু আনোয়ার তাকে আলুর সাথে পটলের চাষ করার পরামর্শ দিলেন।

ক. মিশ্র ফসল চাষ কী?

খ. শস্য পর্যায় প্রযুক্তির সুবিধাগুলো কী কী?

গ. প্রতিবেশি কৃষক বন্ধুর পরামর্শটি কীভাবে বাস্তবায়ন করবে তা ব্যাখ্যা কর।

ঘ. সালমানের ভাগ্যোন্নয়নে চাষ পদ্ধতিটি কতটুকু কার্যকর হবে- বিশ্লেষণ কর।

ক. একাধিক ফসল যা ভিন্ন সময়ে পাকে, বাড়-বাড়তির ধরন ভিন্ন, মাটির বিভিন্ন স্তর থেকে খাদ্য আহরণ করে, এসব ফসলগুলোকে একত্রে চাষকে মিশ্র ফসল চাষ বলে।

খ. শস্য পর্যায় প্রযুক্তির সুবিধাগুলো হলোঃ

১.শস্য পর্যায়ের প্রযুক্তি ব্যবহারে মাটির উর্বরতা সংরক্ষিত হয়।

২. মাটির পুষ্টির সমতা বজায় থাকে।

৩. আগাছার উপদ্রব কম হয়।

৪. পানির অপচয় কম হয়।

৫. ফসলের ফলন বাড়ে।

গ. উদ্দীপকে উল্লেখিত আলু চাষী সালমান দু-বছর ধরে কেবল আলুই চাষ করে যাচ্ছে। আশানুরুপ ফলনও পাচ্ছে না। ফলে সে কিছুটা আর্থিক টানাপোড়োনে পড়ে । এ অবস্থা দেখে তার প্রতিবেশি কৃষক বন্ধু আনোয়ার তাকে আলুর সাথে পটলের চাষ করার পরামর্শ দিলেন। সালমান যেভাবে প্রতিবেশি কৃষক বন্ধুর পরামর্শটি বাস্তবায়ন করবে তা নিচে ব্যাখ্যা করা হলো-

অক্টোবর-নভেম্বর মাসে কৃষকেরা আগাম আলু চাষ করেন। সালমানকে এ আলুর সাথে পটলের চাষ করতে হলে ৫৫ সে.মি. দূরত্বে সারি করতে হবে এবং আলু লাগাতে হবে। প্রতি তৃতীয় সারি ফাঁকা রেখে সে সারিতে ডিসেম্বর মাসে পটলের ডগা রোপণ করতে হবে। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে আলু উত্তোলন শেষ করতে হবে।

ঘ. উদ্দীপকের সালমানের ভাগ্যোন্নয়নে চাষ পদ্ধতিটি কতটুকু কার্যকর হবে নিচে তা বিশ্লেষণ করা হলোঃ

সালমান একজন আলু চাষী। দু-বছর ধরে কেবল আলুই চাষ করে যাচ্ছে। আশানুরুপ ফলনও পাচ্ছে না। তার এ অবস্থা দেখে প্রতিবেশি কৃষক বন্ধু আনোয়ার তাকে আলুর সাথে পটলের চাষ করার পরামর্শ দিলেন। আলুর সাথে রিলে ফসল হিসেবে পটলের চাষ করা যায়। এটি শস্য বহুমূখীকরণের একটি উল্লেখযোগ্য উদাহরণ। এর মাধ্যমে কাক্সিক্ষত ফসল বিন্যাস, শস্যের আবাদ, কৃষকের আয় ও জীবন যাত্রার মান বাড়ানো যায়। প্রচলিত শস্যবিন্যাস উন্নত ফসলের জাত ও কলাকৌশলের সংযোগ ঘটানো যায়। এর ফলে বীজের সাশ্রয় হয় এবং উৎপাদন খরচ কমে। আলুর সাথে রিলে ফসল হিসেবে পটলের চাষ বেশ জনপ্রিয়। জমিতে একই সময়ে আলু ও পটল চাষের ফলে জমির পরিমাণ কম অর্থাৎ একই জমি ব্যবহার করে একাধিক ফসল উৎপাদন করা যায়।

ফলে সালমান তার ভাগ্য উন্নয়ন করতে পারবে। পরিশ্রম কম লাগে এবং সময় সাশ্রয় হয়। ফলে সালমানের অতিরিক্ত মজুরি খরচ হবে না এবং সময় কম লাগবে। এ প্রযুক্তিতে পটলের জন্য আর সার প্রয়োগ করার প্রয়োজন পড়ে না। একই জমি থেকে বাড়তি আয় করা সম্ভব হবে। উপরের আলোচনা থেকে এ কথা প্রমানিত হয় যে,সালমানের ভাগ্যোন্নয়নে চাষ পদ্ধতিটি অত্যন্ত কার্যকরী হবে।