২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেয়ারবাজারে লেনদেন বাড়লেও সূচকের সামান্য পতন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার পতনের মধ্য দিয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে উভয় শেয়ারবাজারে লেনদেন। তবে বেড়েছে অংশ নেয়া বেশিরভাগ শেয়ারের দর। সেইসঙ্গে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসই প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৭৩১ পয়েন্টে। অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৩০৯ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ৩ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯৯৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে আগের কার্যদিবস থেকে বেড়ে সর্বশেষ লেনদেন শেষে পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৯০১ কোটি ৩৯ লাখ ৪ হাজার টাকায়। যা আগের দিন থেকে ১৮২ কোটি টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৭১৯ কোটি ১৩ লাখ ১৭ হাজার টাকার।

ডিএসইতে ৩৪৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪৫ শতাংশ বা ১৫৫টির, কমেছে ৪২ শতাংশ বা ১৪৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৩ শতাংশ বা ৪৫টির।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবারে দর বাড়ার শীর্ষে রয়েছে ফরচুন সুজ। এই দিন শেয়ারটির দর বেড়েছে ৩ টাকা ৪০ পয়সা বা ৯ দশমিক ৯১ শতাংশ। তথ্য অনুযায়ী, শেয়ারটি সর্বশেষ ৩৭ টাকা ৭০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। এদিন কোম্পানিটি ৭ হাজার ২৫৬ বারে ২ কোটি ১০ লাখ ৮৬ হাজার ১৮২টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৭৬ কোটি ৫৭ লাখ ৫৭ হাজার টাকা। এই তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স। এই কোম্পানিটির দর বেড়েছে ১ টাকা ৮০ পয়সা বা ৯ দশমিক ৮৯ শতাংশ। এদিন কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০ টাকা দরে লেনদেন হয়। কোম্পানিটি ৯১ বারে ২ লাখ ২৭ হাজার ৫৭১টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৪৫ লাখ ৫১ হাজার টাকা। বসুন্ধরা পেপার গেইনারের তৃতীয় স্থানে রয়েছে। এই দিন কোম্পানিটির দর বেড়েছে ৬ টাকা বা ৭ দশমিক ৬৭ শতাংশ। এদিন কোম্পানিটি সর্বশেষ ৮৪ টাকা ২০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। কোম্পানিটি ২ হাজার ২০৫ বারে ৮ লাখ ৮৪ হাজার ৬০৯টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৭ কোটি ৩৭ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছেÑ জাহিন স্পিনিং, ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড, হামিদ ফেব্রিক্স, রেনউইক যজ্ঞেশর, সেন্ট্রাল ফার্মাসিউটিক্যালস, প্রাইম টেক্স ও ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস।

এদিকে দরপতনের তালিকায় শীর্ষে আধিপত্য করছে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি। দশটির মধ্যে আটটিই তাদের দখলে। শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৭ দশমিক ৩৮ শতাংশ বা ২ টাকা কমেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। তথ্যানুযায়ী, শেয়ারটি সর্বশেষ ২৫ টাকা ১০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। এদিন কোম্পানিটি ১ হাজার ৪৬২ বারে ১৮ লাখ ৮৮ হাজার ৪৭৮টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে নর্দার্ন জেনারেল ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ বা ১ টাকা ২০ পয়সা কমেছে। কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ২১ টাকা ৭০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এদিন কোম্পানিটি ২৫৫ বারে ২ লাখ ৪৫ হাজার ৮৯০টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৫৩ লাখ ৯৯ হাজার টাকা।

জনতা ইন্স্যুরেন্স তালিকায় তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে। কোম্পানিটির শেয়ার দর আগের দিনের চেয়ে ৫ দশমিক ৯৮ শতাংশ বা ১ টাকা ১০ পয়সা কমেছে। কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ১৭ টাকা ৩০ পয়সা দরে লেনদেন হয়েছে। এদিন কোম্পানিটি ৪৮৯ বারে ৫ লাখ ৫৮ হাজার ৭৩৫টি শেয়ার লেনদেন করে। যার বাজার মূল্য ৯৮ লাখ ৩৪ হাজার টাকা। তালিকায় উঠে আসা অন্যান্য কোম্পানি হচ্ছে- প্রভাতি ইন্স্যুরেন্স, বিচ হ্যাচারি, ফিনিক্স ইন্স্যুরেন্স, সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স, ইউনাইটেড ফিন্যান্স, কনটিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্স ও সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্স।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৭ হাজার ৫৫৪ পয়েন্টে। এ সময়ে সিএসইতে লেনদেনে অংশ নিয়েছে ২৬৮টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৪টির, কমেছে ১০৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির।