২১ জুলাই ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এমবাপের রেকর্ডে পিএসজির জয়

এমবাপের রেকর্ডে পিএসজির জয়

জাহিদুল আলম জয় ॥ ফ্রান্সের বিশ্বকাপজয়ী তারকা কিলিয়ান এমবাপের রেকর্ডগড়া নৈপুণ্যে ভর করে ফরাসী লীগ ওয়ানে জয় পেয়েছে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইন (পিএসজি)। রবিবার রাতে এ্যাওয়ে ম্যাচে স্বাগতিক সেইন্ট-এটিয়েনেকে ১-০ গোলে হারিয়েছে অতিথি পিএসজি। এই জয়ে টানা দ্বিতীয়বার শিরোপা জয়ের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে গেছে প্যারিসের পরাশক্তিরা।

কেননা এই জয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিলের থেকে ১২ পয়েন্টের সুস্পষ্ট ব্যবধানে এগিয়ে শীর্ষে আছে পিএসজি। তাও আবার দুটি ম্যাচ কম খেলে। বর্তমানে ২৩ ম্যাচে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরে পিএসজি। দ্বিতীয় স্থানে থাকা লিলে ২৫ ম্যাচ থেকে সংগ্রহ করেছে ৫০ পয়েন্ট। ২৫ ম্যাচে ৪০ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে এটিয়েন। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট হলেও গোল ব্যবধানে চারে মার্শেই। ২৫ ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে লিঁও।

এবার শিরোপার পাশাপাশি ২০১৫-১৬ সালে রেকর্ড ৯৬ পয়েন্টকে ছাড়িয়ে যাওয়াই এখন পিএসজির মূল লক্ষ্য। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে আগের সপ্তাহে চ্যাম্পিয়ন্স লীলগে জয়ের পর পিএসজি কোচ টমাস টাচেল মিডফিল্ডার মার্কো ভেরাট্টিকে বিশ্রামে রেখেছিলেন। তার পরিবর্তে লিনড্রো পারেডেস প্রথমবারের মতো লীগে মূল একাদশে সুযোগ পেয়েছিলেন। ম্যাচের ১৮ মিনিটে দারুণ একটি সুযোগ পায় সফরকারী পিএসজি। ডানি আলভেসের সঙ্গে দারুণ পাস ভাগাভাগি করে নেয়ার পর জুলিয়ান ড্রাক্সলারের শট ক্রসবারের উপর দিয়ে বাইরে চলে যায়। এরপর এমবাপের শট দারুণ দক্ষতায় আটকে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক স্টিফানে রাফিয়ার। প্রথামার্ধে গোল না পেলেও ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোটাই ছিল পিএসজির দখলে। বিরতির ঠিক পরপরই ড্রাক্সলার আবারও দারুণ একটি সুযোগ নষ্ট করেন। ওল্ডট্রাফোর্ডে দুই গোলেই এসিস্ট করা এ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ার শট পোস্টের অনেক দূর দিয়ে বাইরে চলে যায়। তবে ৭৩ মিনিটে আর হতাশ করেননি এমবাপে। ডানি আলভেসের সহায়তায় রাফিয়ারকে পরাস্ত করে পিএসজিকে জয় উপহার দেন বিশ্বকাপের সেরা উদীয়মান তারকা।

ম্যাচ শেষে পিএসজি কোচ টমাস টাচেল বলেন, প্রতিদিন অনুশীলনে এমবাপে তার যোগ্যতার প্রমাণ দেয়। গোলের জন্য সবসময়ই তার ক্ষুধা থাকে। এটাই তার গুণ, সত্যিকার অর্থেই সে একজন বিশেষ খেলোয়াড়। গত মৌসুমের শুরুতে মোনাকো থেকে পিএসজিতে আসার পর এমবাপে এ পর্যন্ত ৪৫ গোল করেছেন। শুধু তাই নয়, এবারের লীগে এখন পর্যন্ত করেছেন ১৮ ম্যাচে ১৯ গোল। এর ফলে গত ৪৫ বছরে প্রথম ফরাসী খেলোয়াড় হিসেবে লীগ ওয়ানের এক মৌসুমে নিজের প্রথম ১৮ ম্যাচে ১৯ গোল করেছেন এমবাপে। চলতি মৌসুমে ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লীগে পেনাল্টি থেকে কোন গোল করেননি এমন খেলোয়াড়দের মধ্যে তার ১৯ গোলই সর্বোচ্চ। অবশ্য নিজের সাফল্যের চেয়ে দলকে এগিয়ে রাখছেন এমবাপে।

ম্যাচ শেষে উদীয়মান এই তারকা বলেন, দারুণ এমন একটা দলের বিপক্ষে আমরা খেলেছি। খুব কম দলই এখানে জিততে আসবে, আমরা সেটা করলাম। আমরা খুশি। আর পুরো তিন পয়েন্ট নিয়েই আমরা ফিরছি। আমাদের অবশ্যই জয়ের ধারা ধরে রাখতে হবে এবং লক্ষ্যটা যত সম্ভব উঁচুতে রাখতে হবে। আমার পরিসংখ্যান ভাল, কিন্তু দলেরটা আরও ভাল। সেইন্ট-এটিয়েনে কোচ জিন-লুইস গাসেটও এমবাপের প্রশংসায় পঞ্চমুখ। তিনি বলেন, আমরা আর কারও কাছেই হারিনি। যার কাছে হেরেছি সেই ২০ বছর বয়সী খেলোয়াড়টি দ্রুতই বিশ্বের সেরা খেলোয়াড় হতে যাচ্ছে।

এদিকে নান্টেসের বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় নিয়ে লীগ ওয়ানের রেলিগেশন জোন থেকে মুক্তি পেয়েছে সাবেক চ্যাম্পিয়ন মোনাকো। আরেক খেলায় চার ম্যাচে মাঠে নেমে তিনটিতেই গোল করেছেন ঘুরে দাঁড়ানো মার্শেইয়ের ‘ব্যাডবয়’ মারিও বালোতেল্লি। তার গোলের সুবাদে এমিয়েন্স এসসির বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পেয়েছে মার্শেই।